ঢাকায় বাসে আগুন: রাজনীতিকদের নিন্দা-প্রতিবাদ

ঢাকায় বাসে আগুন: রাজনীতিকদের নিন্দা-প্রতিবাদ

রাজধানীতে অন্তত ১০টি বাসে অগ্নিসংযোগের ঘটনার প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়েছে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতারা। শুক্রবার (১৩ নভেম্বর) বিকালে জাসদ, এলডিপিসহ কয়েকটি দলের পক্ষ থেকে বিবৃতিতে এসব নিন্দা জানানো হয়।

জাসদের দফতর বিভাগ থেকে জানানো হয়েছে, বাসে আগুন দিয়ে নাশকতার প্রতিবাদে শনিবার (১৪ নভেম্বর) সকাল ১১টায় বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে দলের কার্যালয়ের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচি ডেকেছে জাসদ।

শুক্রবার গণমাধ্যমে পাঠানো বিবৃতিতে জাসদের সভাপতি হাসানুল হক ইনু এবং সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতার বলেন, ‘গতকাল বাসে আগুন দেওয়ার ঘটনা রাজনৈতিক শক্তি দ্বারা পরিচালিত সংঘবদ্ধ, সুপরিকল্পিত নাশকতার ঘটনা।’

এদিকে, পৃথক এক বিবৃতিতে ২০ দলীয় জোটের শরিক এলডিপি (একাংশ) সভাপতি আবদুল করিম আব্বাসী ও মহাসচিব শাহাদাত হোসেন সেলিম বাসে অগ্নি সংযোগের ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, ‘সরকারের চরম ব্যর্থতা আড়াল করে জনগণের দৃষ্টি অন্যখাতে প্রবাহিত করে বিরোধীদল ও মত দমনের জন্যই এই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটানো হয়েছে।’

এলডিপির দুই নেতা আরও বলেন, ‘বাসের অগ্নিকাণ্ডের এই ধরনের ন্যাক্কারজনক ঘটনা পূর্বপরিকল্পিত ও উদ্দেশ্যমূলক। দেশে সরকারবিরোধী এমন কোনও আন্দোলন নেই যার জন্য এমন কোনও ঘটনা ঘটতে পারে।’

প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার রাজধানীর অন্তত ছয়টি স্থানে হঠাৎ একাধিক বাসে আগুন দেওয়ার ঘটনা ঘটে। এদিন দুপুর সাড়ে ১২টা থেকে দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা বাসে আগুন দেয়। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। ফায়ার সার্ভিসের দায়িত্বরত কর্মকর্তারা জানান, তারা দুপুর সাড়ে ১২টা থেকে একে একে কাঁটাবন, বংশাল, মতিঝিল, শাজাহানপুর, গুলিস্তানের গোলাপ শাহ মাজার ও প্রেসক্লাব এলাকায় বাসে আগুন দেওয়ার খবর জানতে পারেন। পরে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.