বঙ্গবন্ধুকে অবমাননার বিরুদ্ধে নকলায় মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতিবাদ মিছিল সভা

বঙ্গবন্ধুকে অবমাননার বিরুদ্ধে নকলায় মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতিবাদ মিছিল সভা

মো. মোশারফ হোসাইন : বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য ভাঙচুর করার প্রতিবাদে, দুষ্কৃতিকারীদের বিচারের দাবিতে ও জাতির পিতার মর্যাদা অক্ষুন্ন রাখতে শেরপুর জেলার নকলা উপজেলায় মুক্তিযোদ্ধা সংসদ নকলা উপজেলা কমান্ডের আয়োজনে প্রতিবাদ মিছিল ও প্রতিবাদ সভা করেছেন। ১৩ ডিসেম্বর রবিবার উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সের সামনে থেকে প্রতিবাদ সভাটি শুরু হয়ে শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে একই স্থানে গিয়ে শেষ হয়। পরে সেখানে সংক্ষিপ্ত প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

মুক্তিযোদ্ধা সংসদ নকলা উপজেলা কমান্ডের সাবেক কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আবুল মনসুরের নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ মিছিলের অগ্রভাবে ছিলেন- উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাহ মো. বোরহান উদ্দিন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা শফিকুল ইসলাম জিন্নাহ, যুগ্ম সাধারন সম্পাদক ও পৌর মেয়র হাফিজুর রহমান লিটন, যুগ্ম সাধারন সম্পাদক মো. শহিদুল ইসলাম, অর্থ বিষয়ক সম্পাদক সৈয়দ আলম মঞ্জু প্রমুখ। এছাড়া উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মোছা. ফরিদা ইয়াসমিন, বঙ্গবন্ধু শিক্ষা ও গবেষণা পরিষদ নকলা উপজেলা শাখার সভাপতি মো. মজিবুর রহমান, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ নকলা উপজেলা শাখার যুগ্ম আহবায়ক রেজাউল করিম রিপনসহ উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, আমরা মুক্তি যোদ্ধার সন্তান, বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুর রাজ্জাক কমান্ডার স্মৃতি সংসদের নেতৃবৃন্দ, উপজেলা, ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দরা একাত্বতা ঘোষনা করে এ প্রতিবাদ মিছিল ও প্রতিবাদ সভায় অংশ গ্রহন করেন।

প্রতিবাদ মিছিল শেষে মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সের সামনে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা শফিকুল ইসলাম জিন্নাহর সভাপতিত্বে ও যুগ্ম সাধারন সম্পাদক মো. শহিদুল ইসলামের সঞ্চারনায় সংক্ষিপ্ত প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাহ মো. বোরহান উদ্দিন, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের সাবেক কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আবুল মনসুর, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক ও পৌর মেয়র হাফিজুর রহমান লিটন প্রমুখ।

প্রতিবাদ সভায় বক্তারা বলেন, বাঙালি জাতির পিতার অবমাননাকারীরা শয়নে-স্বপনে দেশের অমঙ্গল কামনা করে। তারা জাতির জনকের ভাস্কর্য ভেঙ্গে স্বাধীনতা বিরোধীরা এদেশে পাকিস্তানী আদর্শ কায়েম করতে চায়। কিন্তু স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশে মুক্তিযোদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী এমন অগণিত সাধারণ জনগন আছেন, যারা কখনও এটা মেনে নিতে পারনে না। বক্তারা আরও বলেন, পৃথিবীর মানচিত্রে যতদিন বাংলাদেশ নামক কোন দেশ থাকবে, ততদিন স্বাধীনতার স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সম্মান অম্লান থাকবে। এদেশে যার জন্ম না হলে আমরা হয়তোবা কোনদিন স্বাধীন হতে পারতাম না। হতে পারতাম না স্বাধীন বাঙলার গর্বিত নাগরিক। তাঁর (বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান)-এর কোন ধরনের অবমাননা আমরা সহ্য করতে পারি না, সহ্য করবো না। মুক্তিযোদ্ধের বিপক্ষের শক্তিকে প্রতিহত করতে প্রয়োজনে আবার রক্তদিতে প্রস্তুত আছেন বলে বক্তব্যের মাধ্যমে জানান দেন তাঁরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!