নকলা থানা পুলিশের প্রচেষ্ঠায় স্বজনদের খোঁজে পেলো কুড়িগ্রামের শিশু খাদেমুল

নকলা থানা পুলিশের প্রচেষ্ঠায় স্বজনদের খোঁজে পেলো কুড়িগ্রামের শিশু খাদেমুল

রেজাউল হাসান সাফিত, নকলা(শেরপুর) প্রতিনিধি: শেরপুর জেলার নকলা থানা পুলিশের প্রচেষ্ঠায় কুড়িগ্রাম জেলার রৌমারী থানার সুখেরবাতী গ্রামের খাদেমুল (১১) নামে হাফেজিয়া মাদ্রসার এক শিক্ষার্থী তার পরিবার পরিজনকে খোঁজে পেয়েছে। ২৯ ডিসেম্বর মঙ্গলবার দুপুরের দিকে নকলা থানার এসআই চন্দন কুমার পাল (ডিউটি অফিসার) সহ থানার অন্যান্যদের উপস্থিতিতে খাদেমুলকে তার বড়বোন হালিমা খাতুন ও বোন জামাই (হালিমার স্বামী) ছাইদুর রহমানের হাতে বুঝিয়ে দেওয়া হয়। খাদেমুল সুখেরবাতী গ্রামের হাকিম উদ্দিনের ৪ ছেলে-মেয়ের মধ্যে সবার ছোট ও একমাত্র ছেলে সন্তান।

খাদেমুলের বড় বোনের দেওয়া তথ্য মতে জানা গেছে, কুড়িগ্রাম জেলার রৌমারী উপজেলার হোতাপাড়া মনিপুর হাফেজিয়া মাদ্রাসায় খাদেমুল হেফজ বিভাগে পড়ে। এরই মধ্যে সে আল-কোরআনের ১৫ টি পাড়া মুখস্থ করা শেষে করেছে। খাদেমুল গত শনিবার মাদ্রাসার উদ্দেশ্যে বাড়ি থেকে বেড়হয়ে সে মাদ্রাসায় নাগিয়ে ভুলে নকলায় চলে আসে।

এসআই চন্দন কুমার পাল জানান, ২৯ ডিসেম্বর মঙ্গলবার সিএনজি স্টেশনে খাদেমুলকে উদ্দেশ্যহীনভাবে এদিক সেদিক ঘুরতে দেখে সিএনজি স্টেশনের লাইন ম্যান আল-আমিন তাকে নকলা থানায় নিয়ে আসেন। পরে নকলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মুশফিকুর রহমানের নির্দেশে ও পরামর্শে খাদেমুলের কাছে তার ঠিকানা জেনে রৌমারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি)-এর সাথে কথা বলেন। পরে রৌমারী থানার ওসি খাদেমুলের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে সুখেরবাতী গ্রামের মুসুর মেম্বারের কাছে নিশ্চিত হন যে খাদেমুলের দেওয়া তথ্য সঠিক। অত:পর নকলা থানা থেকে মোবাইল ফোনে খাদেমুলের বড়বোন হালিমা খাতুন ও তার বোন জামাই (হালিমার স্বামী) ছাইদুর রহমানের সাথে কথা বলে তাদেরকে নকলা থানায় আসতে বলা হয়। মঙ্গলবার দুপুরে দিকে তারা নকলা থানায় পৌঁছালে তাদের হাতে খাদেমুলকে হস্থান্তর করেন পুলিশ। এর আগে এবিষয়ে নকলা থানার পুলিশ স্বউদ্যোগে নকলা থানায় একটি সাধারন ডায়েরী (জিডি) করে রাখেন।

পরিবারের একমাত্র ছেলে সন্তান শিশু খাদেমুলকে ফিরে পেয়ে একদিকে তার পরিবার পরিজন যেমন খুশি, তেমনি আনন্দিত খাদেমুল নিজেও। অপরদিকে খাদেমুলকে তার পরিবারের সদস্যদের হাতে হস্থান্তর করতে পেরে স্বস্থি ফিরে পেয়েছেন নকলা থানায় কর্মরত পুলিশ কর্মকর্তাসহ অন্যান্য সকলে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!