শেরপুরে খামারির বাড়িতে হামলা আহত-৪ থানায় মামলা দায়ের গ্রেফতার -১

শেরপুরে খামারির বাড়িতে হামলা আহত-৪ থানায় মামলা দায়ের গ্রেফতার -১

স্টাফ রিপোর্টার:শেরপুর সদর উপজেলার চরপক্ষিমারী দিকপাড়া এলাকায় প্রতিপক্ষের হামলায় প্রবাসফেরত মাসুদ রানা অরফে জনিসহ ৪জন গুরুত্বর আহত হয়েছেন। ৮জানুয়ারী সন্ধ্যায় জনির নিজ বাড়িতে এ হামলার ঘটনা ঘটে। আহত ৪জনই শেরপুর জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
এ ঘটনায় জখমী তাহমিনা আক্তার লিমা’র বাবা বাদী হয়ে শেরপুর সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।
মামলার আসামীরা হলেন- একই এলাকার স্থানীয় মিনাছ আলী (৩০), আনাছ আলী (৩৫), স্বপন মিয়া (৩৮), হযরত আলী, শফিকুল ইসলাম (৪৫), সিফাত (২০)।
পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে হযরত আলী নামে একজনকে গ্রেফতার করেছেন।
জানা যায়, মাসুদ রানা অরফে জনি প্রবাসফেরত হওয়ার পর নিজ বাড়িতে একটি পল্ট্রী মুরগির খামার করেন। খামারটিতে প্রায় ২হাজার মরগী রয়েছে। খামারটি করার পর থেকেই এলাকার কিছু সন্ত্রাসী প্রতিনিয়ত চাঁদা দাবি করে আসছিলো। সে সেটি দিতে অস্বীকৃত জানালে তাকে হত্যার হুমকি দেন উপরোক্ত সন্ত্রাসীগন। গেলো ৬ জানুয়ারী বৃহস্পতিবার ভোরে প্রতিদিনের ন্যায় ফজরের নামাজ পড়ার উদ্দেশ্যে বাহিরে বের হন খামারির বাবা। তাকে দেখেই ওই চিন্হিত আসামীগণ দৌড়ে পালাতে থাকে। পরে তার ডাক চিৎকারে পরিবার ও আশপাশের লোক বের হলে ঘটনাটি শুনে ও খামারে যায়। পরে সেখানে গিয়ে দেখতে পায় প্রায় ১শত ৫০ টি মুরগী মরে আছে। এবং অধিকাংশ মুরগীগুলি টানটান অবস্থায় রয়েছে। তাৎক্ষণিক বুঝতে পায় যে টেংকিতে থাকা পানিতে বিষ মেশানো হয়েছে। পরে এলাকাবাসীর সহযোগিতায় জনি টেংকিতে থাকা সমস্ত পানি ফেলে দেন এবং পুরোটি ঘরম পানি দ্বারা ধৌত করেন।
এ ঘটনার পর খামারি মাসুদ রানা জনি ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে সদর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করলে অভিযোগের প্রেক্ষিতে পুলিশ সরেজমিন তদন্ত যায় এবং তদন্ত শেষে পুলিশ এসে পরলে উদ্দেশ্যপণোদিত ভাবে খামারির বসতবাড়িতে দেশিয় অস্ত্র সস্ত্রে সজ্জিত হয়ে উপরোক্ত আসামীগণ হত্যার উদ্দশ্যে অতর্কিত হামলা চালায়। এতে খামারি মাসুদ রানা জনিসহ তার বাবা-মা ও স্ত্রী গুরুত্বর আহত হন। পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করেন। এদের মধ্যে জনির স্ত্রী লিমার অবস্থা আশঙ্কাজনক।
এ ব্যাপারে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, অভিযোগ পেয়েছি। ঘটনার বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!