রাত পহালেই নকলা পোরসভার নির্বাচন

রাত পহালেই নকলা পোরসভার নির্বাচন

রাত পোহালেই তথা শনিবার সকাল ৮ টা থেকে তৃতীয় ধাপের দেশের ৬৪ পৌরসভা নির্বাচনের ভোট গ্রহন শুরু হবে। ভোট গ্রহন উপলক্ষে প্রতিটি কেন্দ্র এলাকা পোস্টারে ছেয়ে গেছে। সংশ্লিষ্ট নির্বাচন অফিস এরইমধ্যে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে। প্রতিটি কেন্দ্র এলাকার আশপাশ পোস্টার দিয়ে সাজানোসহ সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছেন শেরপুর জেলার নকলা পৌরসভা নির্বাচনের প্রার্থী ও উপজেলা নির্বাচন অফিস।

এরঅংশ হিসেবে শুক্রবার বিকেলে শেরপুর জেলার নকলা পৌরসভা নির্বাচনের প্রতিটি কেন্দ্রে ব্যালট পেপার ছাড়া নির্বাচনী অন্যান্য সরঞ্জমাদি পাঠানো হয়েছে। শনিবার সকালে কেন্দ্রে ব্যালট পেপার পাঠানো হবে বলে জানিয়েছেন সহকারী রিটার্নিং অফিসার ও নকলা উপজেলা নির্বাচন অফিসার তারেক আজিজ। সকাল ৮টা থেকে শুরু হয়ে বিকেল ৪টা পর্যন্ত একটানা ভোট গ্রহণ চলবে। নকলাবাসীকে আবদ, সুষ্ঠ, নিরেপেক্ষ ও সকলের অংশ গ্রহণমূলক নির্বাচন উপহার দিতে পর্যাপ্ত নিরাপত্তাসহ চূড়ান্ত প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে নির্বাচন কমিশন।

নকলা পৌরসভার ১২ টি কেন্দ্রের ৮৭টি ভোট কক্ষের জন্য ১২ জন প্রিজাইডিং অফিসার, ৮৭ জন সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার ও ১৭৪ জন পোলিং অফিসারসহ ঝুঁকি বা সমস্যা মোকাবেলায় অতিরিক্ত আরও শতকার ৫ ভাগ প্রিজাইডিং অফিসার, সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার ও পোলিং অফিসারদের নিয়োগ দিয়ে তাদেরকে ভোট গ্রহন বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে।

এ নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের মনোনিত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী বর্তমান মেয়র উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. হাফিজুর রহমান লিটন, বিএনপি থেকে দলীয় মনোনয়ন প্রাপ্ত ধানের শীষ প্রতীকে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেনা মো. এনামুল হক রিপন। এছাড়া জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য সাবেক মেয়র অধ্যাপক মো. মিজানুর রহমান নারিকেল গাছ প্রতীকে ও পৌর আওয়ামী লীগের সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মো. আনোয়ার হোসেন আনার জগ প্রতীক নিয়ে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন।

এ নির্বাচনে ৪ জন মেয়র প্রার্থী ছাড়াও সাধারন ৯ ওয়ার্ডের প্রতি ৩ ওয়ার্ড মিলে একটি সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ডের প্রতি ওয়ার্ডে ৫ জন করে মোট ১৫ জন মহিলা কাউন্সিলর পদে এবং সাধারন কাউন্সিলর পদে ৫নং ও ৭নং ওয়ার্ডে ৬ জন করে, ৪নং ও ৬নং ওয়ার্ডে ৫ জন করে, ১নং ওয়ার্ডে ৪ জন, ২নং, ৩নং, ৮নং ও ৯নং ওয়ার্ডে ৩জন করে মোট ৩৮ জন প্রার্থী প্রতীদ্বন্দ্বীতা করেছেন।

নকলা পৌরসভায় মোট ভোটার ২৭ হাজার ১৫৯ জন, এরমধ্যে পুরুষ ভোটার ১৩ হাজার ৮ জন ও নারী ভোটার ১৪ হাজার ১৫১ জন। নারী-পুরুষ মোট ভোটারসহ কেন্দ্রের নম্বর ও নাম গুলো হলো- ১নং কেন্দ্র মাউড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ১,৮০০ ভোট; ২নং কেন্দ্র ধুকুড়িয়া এ.জেড টেকনিক্যাল এন্ড বি.এম কলেজে ২,৫৫১ ভোট; ৩নং কেন্দ্র লাভা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ১,৮৫৬ ভোট; ৪নং কেন্দ্র জালালপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৩,৩২৭ ভোট; ৫নং কেন্দ্র নকলা সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ে ২,২০১ ভোট; ৬নং কেন্দ্র নকলা মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ে ১,৩৭৮ ভোট; ৭নং কেন্দ্র কুর্শা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ১,২০৮ ভোট; ৮নং কেন্দ্র নকলা বালিকা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৩,১৮৭ ভোট; ৯নং কেন্দ্র মমিনাকান্দা আল আমিন দাখিল মাদ্রাসায় ২,৫২৪ ভোট; ১০নং কেন্দ্র কায়দা বালকা দাখিল মাদ্রাসায় ২,৩৬৩ ভোট; ১১নং কেন্দ্র কায়দা দক্ষিণ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ১,২৭৩ ভোট ও ১২নং কেন্দ্র কলাপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৩,৪৯১ ভোট।

নকলা পৌরসভায় নির্বাচনী অপরাধসমূহ বিচারার্থে আমলে নেওয়া ও সংক্ষিপ্ত বিচারের নিমিত্তে একজন জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ও তাঁর সহযোগী হিসেবে একজন বেঞ্চসহকারী নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। আইন শৃঙ্খলা রক্ষার্থে বাহিনীকে আইনানুগ দিক নির্দেশনা প্রদান ও প্রয়োজনীয় সমন্বয় পূর্বক দায়িত্ব পালনের নিমিত্তে ৯ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ করা হয়েছে। ১নং, ২নং, ৩নং, ৪নং, ৯নং ও ১২নং প্রতি কেন্দ্রের জন্য একজন করে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এবং ৫নং ও ৬নং, ৭নং ও ৮নং এবং ১০নং ও ১১নং ২টি করে কেন্দ্রের জন্য একজন করে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

এছাড়া প্রতি কেন্দ্রের জন্য বিজিবি, কেন্দ্র ভিত্তিক একজন এস.আই ও সঙ্গীয় পুলিশ সদস্য, একটি মোবাইল টিম, একটি স্ট্রাইকিং ফোর্স ও প্রয়োজনীয় আনসার সদস্য নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। ১নং, ২নং ও ৩নং কেন্দ্রের জন্য বিজিবি-১; ৪নং, ৫নং ও ৬নং কেন্দ্রের জন্য বিজিবি-২; ৭নং ও ৮নং কেন্দ্রের জন্য বিজিবি-৩; ৯নং, ১০নং ও ১১নং কেন্দ্রের জন্য বিজিবি-৪ এবং ১২নং কেন্দ্রের জন্য বিজিবি-৫ কাজ করবে বলে তথ্যসূত্রে জানা গেছে। সবকয়টি কেন্দ্রকেই ঝুঁকিপূর্ণ মনে করা হলেও; ৩নং, ৪নং, ৭নং, ৮নং, ১০নং, ১১নং ও ১২নং কেন্দ্র গুলোকে অধিক ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে বিবেচনা করে, সেমোতাবেক প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে বলে বিশ্বস্থ সূত্রে জানা গেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!