শেরপুরে শহীদ দারোগ আলী’র ৫২তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া মাহফিল ও শ্রদ্ধাঞ্জলী

শেরপুরে শহীদ দারোগ আলী’র ৫২তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া মাহফিল ও শ্রদ্ধাঞ্জলী

স্টাফ রিপোর্টার: শেরপুরে শহীদ দারোগ আলী’র ৫২ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। ৮ মার্চ সন্ধ্যায় শেরপুর বলাইরচরে তার কবরে শ্রদ্ধাঞ্জলি ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। পরে শহীদ দারোগ আলী স্মৃতি সংঘের সভাপতি লেহাজ উদ্দিন এর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক রঞ্জু সেক এর পরিচালনায় এক আলোসভা অনুষ্ঠিত হয়। এসময় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড শেরপুর জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক হুইপ কন্যা ডা. শারমিন রহমান অমি। বিষেশ অতিথি ছিলেন, শেরপুর জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বশিরুল ইসলাম সেলু, দপ্তর সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মামুন, বলাইরচর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি রফিকুল ইসলাম আকন্দ, সহ-সভাপতি দুলাল উদ্দিন মাস্টার, সাধারণ সম্পাদক মনিরুল আলম মনি, শহর ছাত্রলীগের সভাপতি রাকিবুল ইসলাম রুপক প্রমূখ।

উলেক্ষ্য ১৯৬৯ সালের ৮ মার্চ স্বৈরচারী আইয়ুব খানের মৌলিক গণতন্ত্রের বিরুদ্ধে আন্দোলনে নিহত হন শেরপুর জিকে স্কুলের দশম শ্রেণির ছাত্র দারোগ আলী। তার নামানুসারে শেরপুর পৌর পার্কের নাম শহীদ দারোগ আলী পৌর পার্ক নামাকরণের ঘোষণা দেয় তৎকালীন আন্দোলনরত ছাত্র সমাজ। ঊনসত্তরের মার্চ মাসে আইয়ুব খানের মৌলিক গণতন্ত্র বিরোধী আন্দোলনে কেন্দ্রীয় ছাত্র সংগ্রাম পরিষদ ১১ দফা কর্মসূচি ঘোষণা করে। আন্দোলনে সংহতি জানিয়ে বলাইর চর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন প্যারী পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছিলেন। সেই প্ররিস্থিতির কথা স্মরণ করিয়ে দিতে ৮ মার্চ বেলা ১১টা/১২টার দিকে তৎকালীন ছাত্রদের একটি মিছিল চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন প্যারীর কুমড়ারচরের বাড়ির সামনে গিয়ে তাকে পদত্যাগের আহবান জানায়। ওই মিছিলে দারোগ আলীও ছিলেন। ওই সময় চেয়ারম্যানের বাড়ি থেকে তার ছেলে মিজানুর রহমান আঙ্গুর মিছিলকারীদের উপর গুলি চালালে বুকে গুলিবিদ্ধ হয়ে দারোগ আলী ঘটনাস্থলে মারা যান এবং আহত হন আরও তিন জন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!