ঝিনাইগাতীতে সাজাপ্রাপ্ত আসামিকে হাতকড়ার বদলে ফুল

ঝিনাইগাতীতে সাজাপ্রাপ্ত আসামিকে হাতকড়ার বদলে ফুল

ঝিনাইগাতী (শেরপুর) প্রতিনিধি : শেরপুরের ঝিনাইগাতীতে মাদক মামলায় ৬ মাসের সাজাপ্রাপ্ত এক আসামি আত্মসমর্পণ করার পর তাকে হাতকড়া না পরিয়ে ফুলেল শুভেচ্ছা জানিয়েছে পুলিশ।
ঝিনাইগাতী থানায় ২৫ এপ্রিল রবিবার দুপুরে থানায় উপস্থিত হয়ে আত্মসমর্পণ করেন আব্দুর রাজ্জাক নামের ওই আসামি। স্বেচ্ছায় আত্মসমর্পণ করায় তাকে হাতকড়া না পরিয়ে তার হাতে দেওয়া হয় লাল গোলাপ ফুল। রাজ্জাক ঝিনাইগাতী উপজেলার বনকালি এলাকার মৃত আ. জব্বারের ছেলে।
ঝিনাইগাতী থানার পুলিশ জানায়, আব্দুর রাজ্জাক ২০১৪ সালে ঝিনাইগাতী থানায় করা একটি মাদক মামলার আসামি। তার নামে মাদবদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা হওয়ার পর থেকেই তিনি পালিয়ে ছিলেন। এই মামলায় এই বছর আদালত তাকে ৬ মাসের সাজা দেয়। আব্দুর রাজ্জাক পলাতক থাকায় আদালত গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন। কিছুদিন আগে ঝিনাইগাতী থানায় সেই পরোয়ানা পাঠানো হয়। এরপর থানার পুলিশ তাকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চালায়।
পরিবারের মাধ্যমে মোবাইল নম্বর সংগ্রহ করে আ. রাজ্জাকের সঙ্গে যোগাযোগ শুরু করেন ঝিনাইগাতী থানার ওসি মোহাম্মদ ফায়েজুর রহমান। তিনি তাকে পালিয়ে না থেকে আত্মসমর্পণের পরামর্শ দেন এবং সহযোগিতার আশ্বাস দেন । পরে স্বেচ্ছায় থানায় এসে ধরা দেন আ. রাজ্জাক ।
রোববার দুপুরে আত্মসমর্পণ করলে তাকে ফুল দিয়ে বরণ করা হয়। পরে হাতকড়া ছাড়াই আজ বিকেলে তাকে ঝিনাইগাতী জি,আর আমলি আদালতে হাজির করা হলে আদালত তাকে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন।।
আসামি আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ‘মামলার পর থেকে বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে জীবনযাপন করছিলাম। আমার অনুপস্থিতিতে আদালত আমাকে ছয় মাসের সাজা দেয়। পরোয়ানা পেয়ে থানার পুলিশ কয়েকবার আমাকে গ্রেপ্তার করতে আমার বাড়িতে অভিযান চালায়। বাড়িতে না থাকায় পুলিশ আমাকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি। অনেক দিন পালিয়ে থাকতেও ভালো লাগছিল না আর। তাই ওসি সাহেবের পরামর্শে থানায় উপস্থিত হয়ে আজ স্বেচ্ছায় ধরা দিই।থ
ঝিনাইগাতী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ ফায়েজুর রহমান নিউজবাংলাকে জানান, আব্দুর রাজ্জাকের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা পাওয়ার পর তাকে গ্রেপ্তারের জন্য অভিযান চালানোর সময় জানতে পারি তিনি পলাতক।
এরপর তার মোবাইল নম্বর সংগ্রহ করে তাকে পালিয়ে না থেকে আত্মসমর্পণের পরামর্শ দিলে আজ থানায় এসে ধরা দেন। বিকেলে আদালতে হাজির করা হলে আদালত তাকে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেয়।
তিনি আরও জানান, আব্দুর রাজ্জাকের মাকে থানা পুলিশের পক্ষ থেকে খাদ্যসামগ্রী দেয়া হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!