বিপ্লবী রবি নিয়োগীর জন্মবার্ষিকীতে ভিন্নধর্মী আয়োজন সভাকক্ষের

বিপ্লবী রবি নিয়োগীর জন্মবার্ষিকীতে ভিন্নধর্মী আয়োজন সভাকক্ষের

স্টাফ রিপোর্টার :অসহায় একটি পরিবারকে স্বাস্থ্যসম্মত শৌচাগার উপহার দিয়ে অগ্নিযুগের সিংহপুরুষ বিপ্লবী রবি নিয়োগীর ১১১ তম জন্মবার্ষিকী পালন করেছে সাংবাদিক বিপ্লবী রবি নিয়োগী সভাকক্ষ পরিচালনা পর্ষদ। ৩০ এপ্রিল শুক্রবার দুপুরে শেরপুর শহরের নবীনগর এলাকার সেলিম মিয়াকে তার বাড়ীতে নির্মিত এ শৌচাগার হস্তান্তর করা হয়। এর আগে শহরের নিউমার্কেট সভাকক্ষে বিপ্লবী রবি নিয়োগীর জীবন ও কর্ম সম্পর্কে স্মৃতিচারণামুলক আলোচনায় অংশ নেন লেখক-গবেষক অধ্যাপক ড. সুধাময় দাস, অধ্যাপক শিব শংকর কারুয়া, সাংবাদিক আব্দুর রহিম বাদল, নারী নেত্রী নিরু শামসুন্নাহার নীরা, কমিউনিস্ট পার্টির নেতা মাসুম ইবনে শফিক প্রমুখ। তারা বিপ্লবী রবি নিয়োগীর অবদানকে মূল্যায়ন করে রাষ্ট্রীয় পদকে ভুষিত করার দাবী জানান। সাংবাদিক হাকিম বাবুল-এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সভাকক্ষের সভাপতি সাংবাদিক সুশীল মালাকার।
শেরপুর শহরের গৃর্দানারায়ণপুর মহল্লার (পুরাতন গরুহাটি) জমিদার পরিবারে জন্মগ্রহণকারী বিপ্লবী রবি নিয়োগীর ১১১ তম জন্মবার্ষিকী ছিলো ৩০ এপ্রিল শুক্রবার (বাংলা পঞ্জিকার বর্ষগণনা হিসাব মতে ১৩১৬ সালের ১৬ বৈশাখ)। ব্রিটিশ বিরোধী আন্দোলন থেকে শুরু করে মানুষের অধিকার রক্ষায় টঙ্ক আন্দোলন, তেভাগা আন্দোলন, মুক্তিযুদ্ধ ও স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনে রবি নিয়োগী ছিলেন একজন লড়াকু সৈনিক। শত নির্যাতন-নিপীড়ন, কারাভোগ করেও মানুষের অধিকার আদায়ের সংগ্রামে তিঁনি কখনো পিছপা হননি। আন্দোলন-সংগ্রাম করতে গিয়ে বিপ্লবী রবি নিয়োগী আন্দামান সেলুলার জেল সহ বিভিন্ন মেয়াদে ৩৪টি বছর কারাভোগ করেছেন। ফেরারি জীবন কাটাতে হয়েছে আরও অন্তত: ১৫ বছর। তিঁনি ছিলেন আদর্শনিষ্ঠ, সৎ, নির্লোভ, নির্ভীক, দেশপ্রেমিক। আজীবন নিষ্ঠ ছিলেন মানুষের কল্যাণ চিন্তায়। তিঁনি সর্বদাই একটি শোষণহীন, বৈষম্যহীন, অসাম্প্রদায়িক সুন্দর সমাজের স্বপ্ন দেখেছেন। বিপ্লবী রবি নিয়োগী কেবল একজন ব্যক্তি নন, তিনি ছিলেন একটি প্রতিষ্ঠান। স্কুল জীবনেই তিঁনি গুপ্ত সমিতি যুগান্তরে দীক্ষা নিয়ে বিপ্লববাদী ধারায় সক্রিয় হয়েছিলেন। পরে তিঁনি কমিউনিস্ট পার্টির সাথে যুক্ত হন। ত্যাগী নেতা রবি নিয়োগী স্বাধীন বাংলাদেশে কিংবদন্তি হয়ে ওঠেছিলেন। ব্রিটিশদের জুড়ে দেওয়া ’ডাবল স্টারে’র কারণে স্বাধীন বাংলাদেশের মাটিতেও জিয়া ও এরশাদ সরকারের আমলে তিঁনি কারাভোগ করেছেন। বিপ্লবী রবি নিযোগী কলম সৈনিক হিসেবেও মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠায় নিষ্ঠ ছিলেন। তিনি বিনা বেতনে সাপ্তাহিক একতা ও দৈনিক সংবাদের শেরপুর জেলা বার্তা পরিবেশক হিসেবে আজীবন কাজ করেছেন। ২০০২ সালের ১০ মে সূদীর্ঘ কর্মময় জীবনের সমাপ্তি ঘটলেও যুগ-যুগান্তরের মানবমুক্তির লড়াইয়ের ধারায় লড়াকু মানুষের প্রেরণা হয়ে রয়েছেন বিপ্লবী রবি নিয়োগী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!