কুষ্টিয়া জেলা পরিষদের সদস্য মামুনের উপর সন্ত্রাসী হামলা

কুষ্টিয়া জেলা পরিষদের সদস্য মামুনের উপর সন্ত্রাসী হামলা

সামরুজ্জামান (সামুন), কুষ্টিয়া: কুষ্টিয়া জেলা পরিষদের সদস্য মামুন অর রশিদের উপর সন্ত্রাসী হামলার অভিযোগ উঠেছে। হামলায় মামুনের ছোট ভাই আহত হয়েছে বলে জানাগেছে। রবিবার রাত ১১ টার সময় কুষ্টিয়া সদর উপজেলার আলামপুর ইউনিয়নের দরবেশপুর গ্রামে মামুনের বাড়ির অদূরে এ ঘটনান ঘটে।

মামুনের ছোট ভাই এনামুল সূত্রে জানা যায়, ভাদালিয়া বাজার থেকে ভাই এর নিজস্ব প্রাইভেট কারে বাড়ি ফেরার পথে দরবেশপুর কালভাটের কাছে পৌছালে আগে থেকে ওতপেতে থাকা ১৫ থেকে ২০ জনের একটি অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা অতর্কিত হামলা চালায়। এ সময় আমাদের চিৎকারে স্থানীয়রা ছুটে আসলে সন্ত্রাসীরা ৩ রাউন্ড গুলি করে আতঙ্ক সৃষ্টি করে পালিয়ে যায়।

এসময় মামুনের ছোট ভাই আহত হয়। মামুনের ব্যাক্তিগত প্রাইভেট কারকে লক্ষ করে গুলি ছোড়ে। এসময় স্থানীয়রা ছুটে এলে সন্ত্রাসীরা তিন রাউন্ড গুলি করে আতঙ্ক সৃষ্টি করে পালিয়ে যায়। এরপর স্থানীয়রা পুনরায় এসে আমাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠান। হামলাকারীদের মধ্যে ৫ থেকে ৬ জনকে চিনতে পেরেছেন বলে এনামুল জানান।

আহত জেলা পরিষদের সদস্য ও তার ভাই এর শরীরে বেশ আঘাতের চিহ্ন রয়েছে, কয়েকটি শেলাই লেগেছে বলে জানা গেছে। তবে দুই জনই শঙ্কামুক্ত বলে জানান সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক।

আহত মামুন আর রশিদ সদর উপজেলার আলামপুর ইউনিয়নের দরবেশপুর গ্রামের আলী রেজার ছেলে।

এ বিষয়ে কুষ্টিয়া মডেল থানায় কর্মকর্তা (ওসি) শওকত কবির জানান, ভাদালিয়া বাজারে সংঘর্ষ হয়েছে। তবে গুলিবর্ষনের ঘটনা ঘটেছে কিনা সেটা সঠিক জানি না। তবে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এলাকাবাসী জানান, এক সময়ের সন্ত্রাসী জনপদ কুষ্টিয়া মাঝে অনেকদিন শান্ত ছিলো। দীর্ঘদিন পর আবার সন্ত্রাসীরা মাথাচাড়া দিয়ে উঠছে। এটা অশনিসংকেত, দ্রুত এই সন্ত্রাসীদের কে দমন করা না গেলে জেলায় আবার আগের মত সন্ত্রাসী জেলায় পরিনত হতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!