শেরপুরে বয়স্ক বিধবাসহ সকল ভাতা ভোগীদের প্রতি সমাজ সেবা অফিসারের বিশেষ বার্তা

শেরপুরে বয়স্ক বিধবাসহ সকল ভাতা ভোগীদের প্রতি সমাজ সেবা অফিসারের বিশেষ বার্তা

স্টাফ রিপোর্টার:শেরপুর সদর উপজেলার সকল বয়স্ক, বিধবা, প্রতিবন্ধী ভাতা ভোগী, প্রতিবন্ধী শিক্ষা উপবৃত্তি প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের প্রতি উপজেলা সমাজ সেবা অফিসার মোহাম্মদ শফিকুল ইসলাম তার ফেসবুক প্রেসে বিশেষ বার্তা প্রদান করেছেন।

তা নিন্মরূপঃ শেরপুর সদর উপজেলার সকল বয়স্ক, বিধবা, প্রতিবন্ধী ভাতাভোগী, প্রতিবন্ধী শিক্ষা উপবৃত্তি প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে যে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী গত ১৪ জানুয়ারি ২০২১ খ্রিঃ তারিখে সকল ভাতা কার্যক্রমের টাকা মোবাইল ফিন্যানন্সিয়াল সার্ভিসের মাধ্যমে প্রদানের কার্যক্রম উদ্বোধন করেন।

সে আলোকে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় শেরপুর সদর উপজেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের সকল উপকারভোগীর টাকা বিকাশের মাধ্যমে প্রদানের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে।তাই সকল উপকারভোগীকে নিজের NID/পিতা-মাতা,ভাই-বোনের NID দিয়ে বিকাশ হিসাব খোলা মোবাইল নম্বর সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদে উপস্থিত হয়ে বিকাশ প্রতিনিধির কাছে নিজ দায়িত্বে প্রদানের জন্য অনুরোধ করা হলো।

আগামী ৩১ মে পেরোল প্রদানের সর্বশেষ সীমা,তাই নির্ধারিত তারিখের পূর্বেই প্রত্যেক উপকারভোগীকে নিজ নিজ বিকাশ নম্বর প্রদােনর জন্য অনুরোধ করা হলো।৩১মে পর ২০২০-২০২১ অর্থ বছরের বকেয়া টাকা প্রদানের কোন সুযোগ নেই।উল্লেখ্য যে শেরপুর সদর উপজেলার মোট উপকারভোগী প্রায় ৪০ হাজার,০৭/০৫/২০২১ পর্যন্ত বিকাশ হিসাব খোলা হয়েছে প্রায় ৩০ হাজার।উপজেলা সমাজসেবা কার্যালয় শেরপুর সদর,শেরপুর থেকে ৯৩৩১ জন বয়স্ক ভাতাভোগীর ,৪০৪৬ জন বিধবা ভাতাভোগীর এবং ২৯৮৯ জন প্রতিবন্ধী ভাতাভোগীর অক্টোবর ২০২০-মার্চ ২০২১ সময়ের ৬ মাসের মোট ৫ কোটি ৩১ লক্ষ ৩১ হাজার ৫ শত টাকার পেরোল সমাজসেবা অধিদফতরে প্রেরণ করা হয়েছে,অনেকেই বিকাশে টাকা পেয়েছেন অথবা কিছুদিনের মধ্যেই পাবেন,তাই দেরি না করে দ্রুত আপনার বিকাশ হিসাব সংশ্লিষ্ট বিকাশ প্রতিনিধির কাছে জমা দিয়ে আপনার টাকা আপনার বিকাশ হিসাবে নেওয়ার জন্য উপজেলা সমাজসেবা কার্যালয়,শেরপুর সদর,শেরপুরকে আরও বাকি প্রায় ২৪ হাজার ভাতাভোগীর পেরোল প্রদানে সহযোগিতা করুন।

অনুরোধক্রমে
মোহাম্মদ শফিকুল ইসলাম
উপজেলা সমাজসেবা অফিসার
শেরপুর সদর,শেরপুর।

Leave a Reply

Your email address will not be published.