শেরপুরের ‘নকলা ইয়্যুথ রিপোর্টার্স ক্লাব’র আলোচনা সভা, ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত

শেরপুরের ‘নকলা ইয়্যুথ রিপোর্টার্স ক্লাব’র আলোচনা সভা, ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত

নকলা (শেরপুর) প্রতিনিধি:শেরপুর জেলার নকলায় ‘নকলা ইয়্যুথ রিপোর্টার্স ক্লাব’র উদ্যোগে আলোচনা সভা, দোয়া ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ উপলক্ষে ৯ মে রবিবার সরকারি নির্দেশনা মোতাবেক শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে নকলা শহরের প্রান কেন্দ্রে অবস্থিত ‘খানা পিনা’ ফাষ্ট ফুডের দ্বিতীয় তলায় এক আলোচনা সভা, দোয়া ও ইফতার মাহফিলের আয়োজন করা হয়।

নকলা ইয়্যুথ রিপোর্টার্স ক্লাবের সভাপতি মো. নূর হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন- উপজেলায় কর্মরত তরুণ সাংবাদিকের সংগঠন নকলা ইয়্যুথ রিপোর্টার্স ক্লাবের উপদেষ্টা ও নকলা প্রেসক্লাবের সভাপতি মো. মোশারফ হোসাইন, ইয়্যুথ রিপোর্টার্স ক্লাবের উপদেষ্টা ও নকলা প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি খন্দকার জসিম উদ্দিন মিন্টু, ইয়্যুথ রিপোর্টার্স ক্লাবের উপদেষ্টা ও নকলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মোশাররফ হোসেন সরকার বাবু, নকলা ইয়্যুথ রিপোর্টার্স ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মো. ফজলে রাব্বী রাজন, সাংগঠনিক সম্পাদক শিমানুর রহমান সুখন, দপ্তর সম্পাদক সেলিম রেজা, তথ্য ও প্রচার-প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক আসাদুজ্জামান সৌরভ, অর্থ বিষয়ক সম্পাদক সুমন আহম্মেদ, ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক মো. সুজন মিয়া, কার্যকরী সদস্য রেজাউল হাসান সাফিত ও রাইসুল ইসলাম রিফাত প্রমুখ। এসময় নকলা ইয়্যুথ রিপোর্টার্স ক্লাবের অন্যান্য সদস্যবৃন্দ ও শুভাকাঙ্খিরা উপস্থিত ছিলেন।

চলমান করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবেলায় একজন তরুণ সাংবাদিক হিসেবে করনীয় বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়। বিশেষ করে আগত পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষে কেনা কাটা করতে আসা ক্রেতাদের জটলা কমিয়ে সরকারের নির্দেশনা মোতাবেক শারীরিক দূরত্ব বজায় নিশ্চিত করতে একজন সচেতন নাগরিক হিসেবে লেখনির মাধ্যমে কিভাবে জনসচেতনতা সৃষ্টি করা যায়, সে বিষয়ে প্রস্তাব ও সমর্থনের ভিত্তিতে বিভিন্ন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। তাছাড়া আগত পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষে নিজ নিজ সামর্থ অনুযায়ী সহায়তা নিয়ে অসহায় দরিদ্রদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য সকলের প্রতি আহবান জানানো হয়।

আলোচনা সভার পরে দেশ জাতির কল্যানে করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ থেকে মানুষকে সুরক্ষিত রাখতে মহান সৃষ্টিকর্তার দরবারে বিশেষ দোয়া করা হয়। বিশেষ এই মুহুর্তটিকে স্মরনীয় করে রাখতে এক ফ্রেমে ক্যামেরায় বন্ধি হতে কিছু ক্ষণের জন্য উপস্থিত সকলেই নিজ নিজ মাস্ক খুলে ও ইফতার সামনে নিয়ে ফটো সেশনে অংশ নেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.