নকলায় সড়ক দুর্ঘটনায় মানসিক প্রতিবন্ধী নারী নিহত

নকলায় সড়ক দুর্ঘটনায় মানসিক প্রতিবন্ধী নারী নিহত

নকলা (শেরপুর) প্রতিনিধি: শেরপুর জেলার নকলা উপজেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় হাছুনি (২৬) নামে মানসিত প্রতিবন্ধী এক নারী নিহত হয়েছে। ২৫ মে মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে ঢাকা-শেরপুর মহাসড়কের পাইস্কা বাইপাস এলাকায় এ দুর্ঘটনাটি ঘটে। সে পাশ্ববর্তী ফুলপুর উপজেলার হাটপাগলা দক্ষিণ পাড়া এলাকার শরিফ হোসেনের মেয়ে।

পাইস্কা বাইপাস এলাকার জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, রাত ৭টা থেকে সাড়ে ৭টার মধ্যে গুড়ি গুড়ি বৃষ্টিতে ভিজে বাইসাইকেলে বাড়ি ফিরার পথে পাইস্কা বাইপাস এলাকায় ঢাকা-শেরপুর মহাসড়কের পাশে একজন মহিলাকে পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয়দের জানান। পরে জাহাঙ্গীর হোসেন, স্থানীয় এমদাদুল হক ও মানিক মিয়া ভ্যান গাড়িতে করে হাছুনি-কে অজ্ঞান অবস্থায় নকলা হাসপাতালে নিয়ে যান। রোগীর কোন অভিভাবক না থাকায় চিকিৎকরা তাকে নকলা হাসপাতালে ভর্তি করেন। রাত ৯ টা ৫৫ মিনিটে নকলা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সে মারা যায়। জাহাঙ্গীর হোসেন আরও জানান, হাছুনির গায়ে দুর্ঘটনার কোন গুরুতর আঘাতের চিহ্ন পাওয়া না গেলেও তার মাথায় হালকা আঘাতের চিহ্ন দেখা গেছে। এতে সে ধারনা করছেন যে, গুড়ি গুড়ি বৃষ্টির মধ্যে ব্যস্ততম ঢাকা-শেরপুর মহাসড়ক দিয়ে চলার সময় কোন মোটর সাইকেল বা ছোট কোন যানবাহনের সাথে ধাক্কা লেগে পাকা রাস্তায় পড়ে গিয়ে আঘাত প্রাপ্ত হয়ে অজ্ঞান অবস্থায় রাস্তায় পড়ে থাকে।

নিহতের সহোদর বোনের ছেলে (ভাগ্নে) মতিউর রহমান জানান, তার খালা মানসিত প্রতিবন্ধী হাছুনি বেগম ছোট কাল থেকেই মানসিক প্রতিবন্ধী হওয়ায় বাড়ির লোকজনের অজান্তে একা একা বিভিন্ন এলাকায় চলে যেত। আজ মঙ্গলবার দুপুরের দিকে সে বাড়ি থেকে বেড়িয়ে যায়। পরে রাত ১০ টার দিকে তারা লোক মারফত জানতে পারেন হাছুনি সড়ক দুর্ঘটনায় নকলা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে। এ সংবাদ পেয়ে হাছুনির মা (মতিউরের নানী) মমতা বেগম ও মতিউর রহমান নিজে নকলা হাসপাতালে ছুটে আসেন।

নকলা হাসপাতালে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. নাজমুস সাকিব নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। ডা. নাজমুস সাকিব জানান, হাসপাতালে ভর্তি করার পরে হাছুনি বমি করেন। এর পরে ক্রমেই তার অবস্থার অবনতি হতে থাকলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য অন্যত্র পাঠানোর আগেই সে মারা যায়। এ প্রতিেবদন লেখা পর্যন্ত মরেদহ নকলা হাসপাতালেই রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!