বাড়ল ৫ বেঞ্চ, হাইকোর্টে বিচার চলবে ২১টিতে

বাড়ল ৫ বেঞ্চ, হাইকোর্টে বিচার চলবে ২১টিতে

নিজস্ব প্রতিবেদক ।করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাড়ার কারণে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে গত ১২ এপ্রিল থেকে সীমিত পরিসরে সুপ্রিম কোর্টের আপিল ও হাইকোর্ট বিভাগে চলা ভার্চুয়াল বেঞ্চের সংখ্যা বাড়ানো হয়েছে।

মঙ্গলবার (১ জুন) থেকে শুধু ভার্চুয়াল উপস্থিতির মাধ্যমে বিচারকার্য পরিচালনার জন্য হাইকোর্ট বিভাগে ২১টি বেঞ্চ গঠন করে দিয়েছেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন। এই ২১ বেঞ্চের মধ্যে ১৫টি দ্বৈত বেঞ্চ এবং ছয়টি একক বেঞ্চ রয়েছে।

এখন থেকে সপ্তাহে পাঁচ দিন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের ভার্চুয়াল বেঞ্চ, চেম্বার জজ আদালত তিন দিন ও হাইকোর্টের ২১টি বেঞ্চে সপ্তাহের প্রতি কার্যদিবস ভার্চুয়ালি বিচার কার্যক্রম পরিচালিত হবে।

আজ থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত ছুটির দিন ছাড়া সপ্তাহে পাঁচ দিনই বসবেন আপিল বিভাগ। তবে শারীরিক উপস্থিতিতে নয়, ভার্চুয়ালি উপস্থিত হয়ে বিচার কাজ পরিচালনা করবেন। এ বিষয়ে সোমবার (৩১ মে) আপিল বিভাগের রেজিস্ট্রার মো. বদরুল আলম ভূঞার স্বাক্ষরে বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে।

জারি করা বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, আপিল বিভাগের এক নম্বর কোর্ট তথ্য-প্রযুক্তি ব্যবহার করে শুধু ভার্চুয়াল উপস্থিতির মাধ্যমে মঙ্গলবার (১ জুন) থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত সপ্তাহের প্রতি রোববার থেকে বৃহস্পতিবার (সাপ্তাহিক ও সরকারি ছটি ব্যতিরেকে) সকাল সাড়ে ৯টা থেকে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত (সাড়ে ১১টা থেকে ১২টা বিরতিসহ) বিচার কাজ পরিচালিত হবে।

দ্বিতীয় দফায় করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ার প্রেক্ষাপটে গত ৫ এপ্রিল থেকে সারাদেশে নিয়মিত আদালত বন্ধ হয়ে যায়। তবে, জরুরি মামলা শুনানির জন্য আপিল বিভাগ সপ্তাহে তিনদিন বসছেন। আর হাইকোর্ট বিভাগে বসছেন ১৬টি বেঞ্চ।

আর নিম্ন আদালতেও বিচারিক ক্ষমতা ধীরে ধীরে বাড়ানো হয়েছে। এ অবস্থায় আপিল বিভাগ সাপ্তাহিক ছুটির দুইদিন ছাড়া বাকি পাঁচদিনই বসার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

এজন্য সোমবার (৩১ মে) বিজ্ঞপ্তিও জারি করা হয়েছে, তবে যেখানে গত ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত হাইকোর্ট বিভাগে প্রতিদিন ৫২/৫৩টি বেঞ্চ শারীরিক ও ভার্চুয়ালি বসেছে। সেখানে এখন মাত্র ১৬টি বেঞ্চ বসছেন।

এ কারণে হাইকোর্ট বিভাগে বেঞ্চ সংখ্যা বাড়ানোর জন্য আইনজীবীরা প্রধান বিচারপতির কাছে দাবি জানিয়ে আসছেন। এরইমধ্যে মানববন্ধন কর্মসূচিও পালন করেছেন তারা। এ পরিপ্রেক্ষিতে হাইকোর্ট বিভাগে আরও পাঁচটি বেঞ্চ বাড়িয়ে বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!