আজ কাপ কেক খাওয়ার দিন, রইলো রেসিপি

আজ কাপ কেক খাওয়ার দিন, রইলো রেসিপি

লাইফস্টাইল ডেস্ক ।কাপ কেক দেখতেও যেমন আকর্ষণীয়; খেতেও অতুলনীয়। বিশেষ করে ছোটরা কাপ কেকের লোভে বেশি পড়ে। অন্যদিকে বড়রাও ছোট খিদের বড় সমাধান হিসেবে কাপ কেক খেতে পছন্দ করেন।

খুব সহজেই কাপ কেক তৈরি করা যায়। তাও আবার চুলায়। ঘরে থাকা চায়ের কাপেই বসাতে পারেন এই কেক। ঝটপট তৈরি করা যায় কাপ কেক। তাহলে আর দেরি কেন, জানুন রেসিপি-
উপকরণ

১. ডিম ২টি
২. চিনি ১/৪ এক কাপ
৩. তেল ১/৪ কাপ
৪. ময়দা আধা কাপ
৫. বেকিং পাউডার আধা চামচ
৬. অরেঞ্জ ফ্লেভার ১ চামচ (পছন্দমতো যেকোনো ফ্লেভার ব্যবহার করতে পারেন)

পদ্ধতি

ডিম, চিনি এবং তেল একটা পাত্রে ভালো করে ফেটে নিতে হবে; যতক্ষণ পর্যন্ত চিনিগুলো গলে না যায়। এরপর ময়দা এবং বেকিং পাওডার মিশ্রণের ভেতরে দিয়ে আবারো ভালো করে মিশিয়ে নিতে হবে।

সময় নিয়ে হ্যান্ড বিটারের সাহায্যে মিশ্রণটি ফেটিয়ে নিতে হবে। এরপর মিশ্রণের মধ্যে অরেঞ্জ ফ্লেভার দিয়ে দিন। কেউ চাইলে নিজের পছন্দমতো চকলেট, ভ্যানিলা, স্টবেরিসহ যেকোনো ফ্লেভার মেশাতে পারেন।

এরপর চায়ের কাপের ভেতরে আলতো করে তেল লাগিয়ে নিন। যাতে কেকটি তৈরি হয়ে গেলে তা কাপের গায়ে লেগে না যায় এবং ভালোভাবে উঠে আসে। এরপর মিশ্রণটা কাপের মধ্যে ঢালতে হবে।

কাপের অর্ধেকটা খালি রাখুন। যাতে কেক ফুলে ওঠে পুরোটা ভরে যায়। কেউ চাইলে এর মধ্যে কিছু চেরি কুচি দিতে পারেন। সেক্ষেত্রে কেকটা দেখতে সুন্দর হবে এবং স্বাদও বাড়বে।

এরপর কাপগুলো একটি ফ্রাইপেন বা বড় পাত্রে রেখে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে ১৫ থেকে ২০ মিনিট হালকা আঁচে বেক করে নিন। এক্ষেত্রে কাচের ঢাকনা দিয়ে ঢাকলে সুবিধা হবে।

কারণ বাইরে থেকেই দেখা যাবে কেকটা কতটুকু বেক হয়েছে এবং সে হিসেবে নামানো যাবো। কেক হয়ে গেলে চুলা থেকে নামানোর আগে একটি টুথপিক ঢুকিয়ে দেখতে পারেন ভালোভাবে বেক হয়েছে কি-না। এরপর নামিয়ে ঠান্ডা করে এর উপর ক্রিম দিয়ে নকশা করতে পারেন। এরপর পরিবেশন করুন সুস্বাদু কাপ কেক।

আজ কাপ কেক দিবস। ১৯৭৬ সালে প্রথম কাপ কেক আনুষ্ঠানিকভাবে আবিষ্কৃত হয়েছিল। প্রথমদিকে সিরামিকের মগ ভর্তি করে তৈরি করা হত কাপ কেক। এর চাহিদা ধীরে ধীরে বাড়তে শুরু করে। বর্তমানে কাপ কেক বিশ্বজুড়েই জনপ্রিয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!