কানাডায় মৃত্যু ছাড়াল ২৬ হাজার, টরন্টোতে বেড়েছে বিধিনিষেধ

কানাডায় মৃত্যু ছাড়াল ২৬ হাজার, টরন্টোতে বেড়েছে বিধিনিষেধ

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ কানাডায় করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা ২৬ হাজার ছাড়িয়েছে। তবে দেশটিতে প্রতিদিন করোনা শনাক্তের সংখ্যা বাড়লেও তা আগের তুলনায় অনেক কম।

সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, কানাডায় করোনা শনাক্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৪ লাখ ৫ হাজার ১শথ ৪৬ জনে। মৃত্যু হয়েছে ২৬ হাজার একজনের। আর সুস্থ হয়েছেন ১৩ লাখ ৬৪ হাজার ৯শথ ৯৭ জনে।

গত বছর মার্চ মাসে দেশটির ব্রিটিশ কলম্বিয়ায় প্রথম করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। এরপর থেকে মৃত্যুর সংখ্যা বাড়তে বাড়তে এখন ২৬ হাজার ছাড়াল।

অন্যদিকে কানাডার টরেন্টোতে কোভিড-১৯ সংক্রান্ত বিধিনিষেধের মেয়াদ বাড়ানো হয়েছে।

বুধবার বিধিনিষেধের মেয়াদ শেষ হওয়ার কথা থাকলেও ওইদিনই তা ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বর্ধিত করা হয়। প্রয়োজনে ১ অক্টোবর অনুষ্ঠেয় কাউন্সিলের বৈঠক পর্যন্ত বিধিনিষেধ থাকবে।

টরন্টো জনস্বাস্থ্য বিভাগের মেডিকেল অফিসার ডা. এইলিন দ্য ভিলার সুপারিশে এই মেয়াদ বর্ধিত করা হয়।

টরন্টোবাসীকে সিটি পার্ক বা পাবলিক স্কোয়ারে মাস্ক পরিধান অব্যাহত রাখতে হবে। সেই সঙ্গে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, অ্যাপার্টমেন্ট ও কন্ডোমিনিয়ামের যেখানে জনসমাগম হয়, সেখানে মাস্ক পরিধানও জারি রাখতে হবে। পাশাপাশি অ্যাপার্টমেন্টের জিম ও সুইমিং পুলগুলোও বন্ধ রাখতে হবে।

ডি ভিলা বলেন, কোভিড-১৯ সংক্রমণের সংখ্যা কমে আসছে। কিন্তু উদ্বেগ এখনও দূর হয়নি। করোনাভাইরাসের বিস্তার কমাতে আমাদের চেষ্টা অব্যাহত রাখতে হবে।

বিশিষ্ট কলামিস্ট, উন্নয়ন গবেষক ও সমাজতাত্ত্বিক বিশ্লেষক মো. মাহমুদ হাসান বলেন, স্বাস্থ্য বিভাগের নির্দেশনা মোতাবেক সরকারের গৃহীত পদক্ষেপ আর বিধিনিষেধ মেনে চলার কোনো বিকল্প নেই। নিয়ম মেনে ধৈর্য ধরলেই কেবল দ্রুত সুদিন ফিরে আসবে এমনটাই আমার বিশ্বাস।

বিশিষ্ট কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব ও রিয়েল এস্টেট ব্যবসায়ী কিরণ বনিক শংকর জানালেন, করোনা কমতে শুরু করায় মনের মধ্যে স্বস্তি ফিরে আসছে। প্রকৃতি নতুন করে জেগে উঠবে, সবকিছু স্বাভাবিক হয়ে নতুন আলোয় উদ্ভাসিত হবে আগামীর দিনগুলো। এমনটাই আমাদের প্রত্যাশা।

উল্লেখ্য, ২০২২ থেকে ২০২৪ সালের মধ্যে ভ্যাকসিনের কোনো ঘাটতি যেন না পড়ে সেজন্য কয়েক কোটি ডোজ টিকার ব্যবস্থা করেছে কানাডা। চুক্তিবদ্ধ হয়েছে একাধিক প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে। কয়েক কোটি ডোজ ভ্যাকসিন সুরক্ষিত রাখার কথা জানিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!