কুষ্টিয়া শহরে ৭ পয়েন্টে চেকপোস্ট, চলবে কঠোর লকডাউন

কুষ্টিয়া শহরে ৭ পয়েন্টে চেকপোস্ট, চলবে কঠোর লকডাউন

সামরুজ্জামান (সামুন), কুষ্টিয়া কুষ্টিয়ায় কোভিড-১৯ সংক্রমণ বৃদ্ধির ফলে কুষ্টিয়া পৌর এলাকায় (১৯জুন-২০২১) শনিবার থেকে কঠোর বিধি নিষেধ-এর আওতায় পড়েছে। শুক্রবার থেকেই শুরু হয়েছে পুলিশি এ্যাকশন।

এদিকে ১৮ জুন কুষ্টিয়া জেলা ম্যাজিস্ট্রেট গণবিজ্ঞপ্তিতে জানান, ১১ জুন ২০২১ খ্রিস্টাব্দ করােনা ভাইরাসজনিত রােগ (কোভিড -১৯) সংক্রমণের ফলে সৃষ্ট বর্তমান পরিস্থিতি বিবেচনায় এবং জেলা করােনা ভাইরাস প্রতিরােধ কমিটির ১৭ জুন সভার সিদ্ধান্ত মােতাবেক ১৮ জুন দিবাগত রাত ১২:০১ মিনিট হতে আগামী ২৫ জুন মধ্যরাত (১২:০০ টা) পর্যন্ত কুষ্টিয়া জেলার কুষ্টিয়া পৌরসভাধীন সমগ্র এলাকায় নিমরূপ বিধি নিষেধ আরােপ করেন

সকল ধরনের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, শপিংমল, দোকান, রেস্টুরেন্ট বন্ধ থাকবে। তবে কাঁচাবাজার ও নিত্যপ্রয়ােজনীয় পণ্যের দোকান সকাল ০৮:০০ টা হতে দুপুর ১:০০ টা পর্যন্ত স্বাস্থ্যবিধি মেনে খােলা রাখা যাবে :

বিধি-নিষেধ চলাকালীন সময়ে কুষ্টিয়া পৌরসভা এলাকায় সকল ধরনের যানচলাচল বন্ধ থাকবে;

অতি জরুরী প্রয়ােজন ব্যতীত (ঔষধ ও নিত্যপ্রয়ােজনীয় দ্রব্যাদি ক্রয়, চিকিৎসা সেবা, মৃতদেহ দাফন/সৎকার ইত্যাদি) কোনভাবেই বাড়ির বাইরে বের হওয়া যাবে না। তবে টীকা কার্ড প্রদর্শন সাপেক্ষে টীকা গ্রহনের জন্য যাতায়াত করা যাবে ;

সকল পর্যটন কেন্দ্র, রিসাের্ট, কমিউনিটি সেন্টার ও বিনােদন কেন্দ্র বন্ধ থাকবে ;

জনসমাবেশ হয় এ ধরনের সামাজিক (বিবাহােত্তর অনুষ্ঠান (ওয়ালিমা), জন্মদিন, পিকনিক, পার্টি ইত্যাদি), রাজনৈতিক ও ধর্মীয় আচার অনুষ্ঠান বন্ধ থাকবে ;

জরুরী প্রয়ােজনে চলাচলকারী সকলকে বাধ্যতামূলকভাবে মাস্ক পরিধান করতে হবে ;

শুধুমাত্র জরুরি সরকারি নির্মাণ কাজ স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে চলমান থাকবে এবং এ সংক্রান্ত পণ্য পরিবহন বিধি-নিষেধের আওতা বহির্ভূত থাকবে ;

আইন-শৃঙ্খলা এবং জরুরি পরিষেবা যেমন-কৃষি উপকরণ, খাদ্যশস্য ও খাদ্যদ্রব্য পরিবহন, ত্রাণ বিতরণ, স্বাস্থ্য সেবা, গণমাধ্যম (প্রিন্ট ও ইলেস্ট্রনিক মিডিয়া), বিদ্যুৎ, পানি, জ্বালানি, ফায়ার সার্ভিস জরুরি পরিষেবার আওতাভুক্ত হবে এবং তাদের কর্মচারী ও যানবাহন এ নিষেধাজ্ঞার আওতা বহির্ভূত থাকবে ;

পুর্বের ন্যায় শিল্প-কারখানাসমূহ স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণপূর্বক নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় চালু থাকবে। তবে, শ্রমিকদের স্ব স্ব প্রতিষ্ঠান কর্তৃক নিজস্ব পরিবহন ব্যবস্থাপনায় আনা-নেওয়া নিশ্চিত করতে হবে।

উক্ত শর্তাবলী সংশ্লিষ্ট সকলকে কঠোরভাবে মেনে চলার জন্য বলা হয়। অন্যথায় প্রয়ােজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

কুষ্টিয়া পুলিশ সুপার খায়রুল আলম এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, শুক্রবার থেকেই আমরা কঠোর ভাবে লকডাউন মানাতে কাজ শুরু করেছি। শহরে প্রবেশের ৭ টি পয়েন্টে কঠোর চেকপোস্ট বসানো হয়েছে। অতি জরুরী প্রয়োজনে ব্যবহিত যানবাহন ছাড়া বাই সাইকেল প্রর্যন্ত শহরে প্রবেশ করতে দেওয়া হয়নি। আমি নিজেও প্রতিটি পয়েন্টে গেছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!