জামালপুরে কিন্ডারগার্টেন শিক্ষকদের মানবেতর জীবন

জামালপুরে কিন্ডারগার্টেন শিক্ষকদের মানবেতর জীবন

আবু সাঈদ পলাশ,জামালপুর:বর্তমানে করোনা মহামারীতে প্রায় ১৭ মাস যাবৎ দেশের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ রয়েছে।এই সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ থাকায় সবচেয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছে জামালপুর জেলার কিন্ডারগার্টেন ও ব্যক্তিমালিকানায় গড়ে ওঠা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে কর্মরত শিক্ষক-কর্মচারীরা।
সরকারী নির্দেশনা অনুযায়ী বিগত বছরের ১৭ মার্চ থেকে এসকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ থাকায় শিক্ষক কর্মচারীদের বকেয়া বেতন পরিশোধ করতে পারছেন না সংশ্লিষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর পরিচালনায় থাকা পরিচালকরা।
বাংলাদেশ কিন্ডারগার্টেন এসোসিয়েশন জামালপুর জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক মো: হাবিবুল্লাহ্’র সাথে কথা বলে জানা যায়,জামালপুর জেলায় প্রায় ৫১৭ টি কিন্ডারগার্টেন ও প্রাইভেট স্কুল রয়েছে।এসকল প্রতিষ্ঠানগুলোর অধিকাংশই চলে ভাড়া করা বাসায়।বর্তমানে এসকল প্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ থাকায় বাসার বকেয়া ভাড়াগুলো পরিশোধ করতে পারছেন না স্কুল মালিকরা এবং এ কারনে জেলার বেশকিছু স্কুল স্থায়ীভাবে বন্ধ হয়ে গেছে।
বাংলাদেশ কিন্ডারগার্টেন এসোসিয়েশন জামালপুর জেলা শাখার সভাপতি আবু সাঈদ পলাশ বলেন,আমরা এ পর্যন্ত কিন্ডারগার্টেন স্কুল শিক্ষকদের জন্য সরকারী বা বেসরকারী কোন সহায়তা পাইনি।তিনি বলেন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ থাকায় জামালপুর জেলায় অনেক শিক্ষক তাদের পেশা পরিবর্তন করেছেন এবং শিক্ষকরা তাদের পরিবার নিয়ে অত্যন্ত অসহায় হয়ে খুব কষ্টে দিন অতিবাহিত করছেন।
আয়ের একমাএ উৎস বন্ধ হয়ে যাওয়ায় কিন্ডারগার্টেন ও প্রাইভেট স্কুলগুলোতে কর্মরত শিক্ষক-কর্মচারীদের মধ্য এখন হাহাকার বিরাজ করছে।স্কুল মালিকদের অনেকেই এখনো স্বপ্ন দেখছেন একটি সু্স্থ ও স্বাভাবিক বাংলাদেশের, যখন আর করোনার প্রকোপ থাকবে না,শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের পদচারণায় মুখরিত হবে প্রিয় প্রতিষ্ঠানগুলো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!