কৃষ্ণচূড়া ফাউন্ডেশন এর নিয়মিত ও ভিন্নধর্মী ঈদ কার্যক্রম ” আমাদের ঈদ-৪ “

কৃষ্ণচূড়া ফাউন্ডেশন এর নিয়মিত ও ভিন্নধর্মী ঈদ কার্যক্রম ” আমাদের ঈদ-৪ “

স্টাফ রিপোর্টার:বহুল আলোচিত সামাজিক সংগঠন “কৃষ্ণচূড়া ফাউন্ডেশন” এর উদ্যোগে শতাধিক ছিন্নমূল পরিবারের মাঝে ঈদ উপহার প্রদান করা হয়েছে।উপহারপ্রাপ্ত পরিবারগুলোর আত্মসম্মান এর কথা ভেবে স্বেচ্ছাসেবীরা বিভিন্ন টিমে বিভক্ত হয়ে গোপনীয়তার সাথে বাড়ি বাড়ি গিয়ে এই উপহার সামগ্রী(সেমাই,নুডলস,চিনি,মসলা,পিঠা,সাবান,মাস্ক,দুধ,ইত্যাদি) পৌছে দেন।উক্ত কার্যক্রমে উপস্থিত ছিলেন সংগঠন এর সহ-সভাপতি সাইম ইসলাম তপু, সাধারণ সম্পাদক খন্দকার রুমান শাহ, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান সাকিব, সাংগঠনিক সম্পাদক আহসান শাকিল,মমিনুল ইসলাম মমিন, আব্দুল্লাহ আফিফ, ফাহিম।মানবিক এই সংগঠনটির প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান শেরপুর জেলার কৃতী সন্তান মাহমুদুল হাসান মিল্লাত। সংগঠনটি প্রত্যেক বছর ই ভিন্নধর্মী এই কার্যক্রম
” আমাদের ঈদ ” বাস্তবায়ন করে আসছে এছাড়াও করোনাকালে এবং বন্যায় বেশ কয়েকটি সফল কার্যক্রম এবং রক্তদানের মাধ্যমে অসহায় ও সুবিধাবঞ্চিত মানুষের পাশে ছিলো। এছাড়াও শেরপুর জেলার প্রথম সামাজিক সংগঠন হিসাবে অর্ধ শতাধিক সুবিধাবঞ্চিত মেধাবী শিক্ষার্থীর পড়াশোনার সার্বিক খরচ ব্যবস্থাপনায় কাজ করে যাচ্ছে ” কৃষ্ণচূড়া ফাউন্ডেশন”।

সংগঠনটির চেয়ারম্যান মাহমুদুল হাসান মিল্লাত বলেন ” কোনো রকম পৃষ্ঠপোষকতা ছাড়া সম্পূর্ণ স্বেচ্ছাসেবীদের অর্থায়নেই আমরা আমাদের কার্যক্রমগুলো করে থাকি, সকল বয়সের বিশেষ করে তরুনরা সংগঠন এর কার্য্রক্রমে মুগ্ধ হয়ে আমাদের সাথে কাজ করছে, শীগ্রই আমরা একটি টেলিমেডিসিন সেবা চালু করতে যাচ্ছি-আমরা আমাদের সামর্থ অনুযায়ী মানুষের পাশে ছিলাম,আছি,থাকবো “।

সাধারণ সম্পাদক খন্দকার রুমান শাহ বলেন ” আমরা ইতোপূর্বে বেশ কয়েকটি সফল কার্যক্রমের মাধ্যমে সুবিধাবঞ্চিত মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছি ইনশাআল্লাহ ভবিষ্যতেও এই ধারা অব্যাহত থাকবে”।

যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান সাকিব বলেন ” পাশে ছিলাম,আছি,থাকবো স্লোগানের আদর্শে কাজ করে যাচ্ছি, সামর্থ অনুযায়ী অসহায়-সুবিধাবঞ্চিত মানুষের পাশে দাড়াতে আমি এবং আমার স্বেচ্ছাসেবীরা বদ্ধপরিকর “।

সাংগঠনিক সম্পাদক আহসান শাকিল বলেন ” প্রত্যেক ঈদে উপহার নিয়ে যখন বাড়ি বাড়ি যাই মানুষগুলোর হাসিমুখ দেখলেই সকল ক্লান্তি দূর হয়ে যায়-সর্বোপরি মানুষের ভালোবাসা পাচ্ছি এটাই আমাদের অর্জন,পরিশ্রমের স্বার্থকতা “।

সংগঠনটির সভাপতি আশিক মাহমুদ শারীরিক অসুস্থতার কারণে কার্যক্রমে উপস্থিত থাকতে না পারলেও সার্বিক কাজে স্বেচ্ছাসেবীদের সাহায্য করেছেন। ভিন্নধর্মী কার্যক্রমের মাধ্যমে পথচলা কৃষ্ণচূড়া ফাউন্ডেশন এর বর্তমান সদস্য সংখ্যা দুই শতাধিক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!