কালভার্ট দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে চলছে গাড়ি -সত্যবয়ান

কালভার্ট দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে চলছে গাড়ি -সত্যবয়ান

আবু তোরাব, ত্রিশাল (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি|ময়মনসিংহ ত্রিশাল ঝুঁকিপূর্ণ কালভার্ট লোহার জোড়াতালি পাটাতন দিয়ে যাতায়াত করে য়ানবাহনসহ হাজারো মানুষ । ধসে পড়া কালভার্টের ওপর লোহার পাটাতন বসিয়ে সড়ক সচ্ল করলেও প্রায় ঘটে ছোট খাটো দুর্ঘটনা। গত কয়েক বছর ওই কালভার্টের অর্থ শতাধিক গাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত ও শতাধিক পথচারী আহত হয়েছে বলে স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন।
সরজমিনে দেখা যাই, ভাঙ্গা কালভার্টের লোহার পাটাতন দেওয়া হয়েছে। আরো বাকি অর্ধেক অরক্ষিত। যেকোনো সময় ঘটতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা। লোহার পাটাতনের ফাঁকে ব্যাটারি চালিত একটি অটোরিকশা আটকে পড়ে। স্থানীয়দের সহায়তায় উদ্ধার করেছেন চালককে নাম মোহাম্মদ আলতাব আলী চালক মোহাম্মদ আলতাব আলী কালভার্টটি পার হওয়ার সময় পাটাতনে পাশে খোলা জায়গা ভয় করে অনেক গাড়ি এখানে আটকে যায়। এতে গাড়ির যন্ত্রাংশ নষ্ট হয়, অনেক যাত্রও আহত হয়।

স্থানীয়রা জানান ভাঙ্গা কালভার্ট লোহার পাটাতনটি সঠিক ভাবে না বসানোর কারণে গাড়ি চলা চলের সময় নড়াচড়া করে । কারণে গাড়ি কালভার্টের উপর গাড়ি আটকে গিয়ে প্রায় ঘটে দুর্ঘটনা।

সিএনজি চালক রায়হান জানান,অনেক দিন ধরেই এ কালভার্টটি ভাঙ্গা। ভাঙ্গা কালভার্টে লোহার পাটাতন দিয়ে তবু অর্ধেক। আর বাকিটুকু খোলা তাই দুর্ঘটনার শিকার হতে হয় অনেকেই। দিনের বেলা কষ্ট করে চলা য়ায কিন্তু রাত হলেই কোন বাতিল ব্যবস্থা নেই । পরতে হয় বড় ধরনের দুর্ঘটনায়। খোলা কাল রাতে জঙ্গলে বড়ে পাচ্ছে দেখা যায় না এখানে পা পড়লেই নিচে চলে য়ায । অনেকে আহত হয়েছে । আর রাস্তার অবস্থাও অনেক খারাপ।

হরিরামপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবু সাঈদ বলেন, কালভার্টটি এলাকাবাসীর জন্য বিষফোঁড়া । সারা বছরই এখানে দুর্ঘটনা লেগেই আছে। কিছু দিন আগে মালবাহী ট্রাক পাটাতন ভেঙে পরে যায়। এটি নতুন করে নির্মাণের জন্য কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন করব ।

উপজেলা প্রকৌশলী মনিরুজ্জামান বলেন, এটি আমাদের এল জি ই ডি রাস্তা। এই কালভার্টের সম্পর্কে আমরা অবগত হয়েছি। অল্প সময়ের মাঝেই কালভার্টের পরিদর্শন করে প্রস্তাবনা পাঠাবো দ্রুতই এর সমাধান হবে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.