করোনা প্রতিরোধে সরকারের পদক্ষেপ সফল হয়েছে- ড. তাজুল ইসলাম-সত্যবয়ান

করোনা প্রতিরোধে সরকারের পদক্ষেপ সফল হয়েছে- ড. তাজুল ইসলাম-সত্যবয়ান

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি : ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়ায় করোনার গণটিকা কার্যক্রমে মঙ্গলবার(৭সেপ্টেম্বর) দ্বিতীয় ডোজের টিকা প্রদান কার্যক্রমেও স্বেচ্ছাসেবা দিয়ে সহযোগিতা করেছে বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আবুল হোসেন তালুকদার ফাউন্ডেশনের স্বেচ্ছাসেবীরা। ফাউন্ডেশনের সভাপতি ও বাংলাদেশ কাস্টমসের অতিরিক্ত কমিশনার ড. মোহাম্মদ তাজুল ইসলাম বর্তমান সরকারের এই সময়োপযোগি কর্মসূচি সঠিকভাবে বাস্তবায়নের লক্ষ্যে সাধারণ মানুষকে সচেতন করা, সঠিকভাবে বিনা খরচে রেজিস্ট্রেশন করাসহ নানাভাবে সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছেন। তাঁর নির্দেশনায় স্বেচ্ছাসেবীরা টিকাদান কার্যক্রমে সার্বিকভাবে সহযোগিতা করে যাচ্ছেন।

মঙ্গলবার বিভিন্ন বুথে টিকাদান কার্যক্রম পরিদর্শনকালে, ড. মোহাম্মদ তাজুল ইসলাম বলেন, সরকার টিকাদানের মাধ্যমে মহামারি করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর হার জিরো টলারেন্সে নিয়ে আসতে কাজ করছে। এ সরকারের টিকাদানের মত কার্যক্রম বাস্তবায়নসহ নানামুখি সফল পদক্ষেপে করোনার প্রাদুর্ভাব কমে এসেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সময়োপযোগি পদক্ষেপের ফলে করোনার ভয়াবহতা থেকে দেশ রক্ষা পেয়েছে।

গত ২৪ জুলাই গণটিকা কার্যক্রমের প্রথম ডোজ প্রদানের সময় আছিম পাটুলী ইউনিয়নে বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আবুল হোসেন তালুকদার ফাউন্ডেশনের ৭০ জন স্বেচ্ছাসেবী গ্রামের মানুষকে সচেতন করে টিকার জন্য রেজিস্ট্রেশনের ব্যবস্থা করতে দিনরাত পরিশ্রম করেন। বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া স্বেচ্ছাসেবকরা বিভিন্ন পয়েন্টে বসে এবং বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে রেজিস্ট্রেশন করান। ড. তাজুল ইসলাম নিজের তার সন্তানদের নিয়ে সাধারণ মানুষের রেজিস্ট্রেশনের ব্যবস্থা করিয়ে দেন। করোনার মহামারি থেকে জাতিকে রক্ষা করতে সরকারের টিকা দান কার্যক্রম সফল করার লক্ষ্যে তিনি তার লোকজন নিয়ে কাজ করেন। এসময় স্থানীয় ছাত্রলীগ যুবলীগ, যুবলীগের নেতাকর্মীরা সহযোগিতা করতে এগিয়ে আসে। এর গত ৭ আগস্ট গণটিকা প্রদানের দিন আছিমে ছিল নারী পুরুষের উপচে পড়া ভীড়। এদিন একসাথে আছিম ইউনিয়নে ২২০০ জন টিকা গ্রহন করেন। গণটিকা প্রথম দিনে বিপুল সংখ্যক গ্রামীণ জনগোষ্ঠীর টিকা প্রদানকে সরকারেরই সাফল্য হিসেবে দেখেন তারা।

এরই ধারাবাহিকতায় মঙ্গলবার গণটিকার দ্বিতীয় দিন প্রথম ডোজ গ্রহণকারী সকলেই যাতে নির্দিষ্ট কেন্দ্রে গিয়ে টিকা নির্বিঘ্নে টিকা গ্রহণ করেন সেলক্ষে ড. মোহাম্মদ তাজুল ইসলামের নির্দেশনায় বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল হোসেন তালুকদার ফাউন্ডেশনের স্বেচ্ছাবেকরা গণসচেতনায় ব্যাপক কাজ করেন। ফলে এদিন লোকজন সঠিকভাবে উপস্থিত হয়ে দ্বিতীয় ডোজের টিকা গ্রহণ করেন।

এদিন ড. তাজুল ইসলাম বিভিন্ন বুথে গিয়ে টিকাদান কার্যক্রম পরিদর্শন করেন। এসময় তিনি টিকা গ্রহণকারী প্রান্তিক মানুষের সাথে কথা বলেন। লোকজন টিকা নিতে পেরে খুশি এবং সরকারের এ উদ্যোগের প্রশংসা করেন। এসময় তাজুল ইসলাম বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা সব সময় দেশের মানুষের কথা ভাবেন। তিনি সর্বস্তরের মানুষের নিরাপত্তার কথা চিন্তা করেই দ্রুত সময়ের মধ্যে করোনার টিকা প্রদানের ব্যবস্থা করেছেন। প্রত্যেককেই সচেতনভাবে টিকা নিয়ে নিজের জীবন নিরাপদ করার পাশাপাশি জাতিকে নিরাপদ রাখতে সহযোগিতা করা উচিত। এসময় অন্যান্যের মধ্যে ত্রিশাল পৌরসভার প্রশাসনিক কর্মকর্তা মো. মনিরুজ্জামান মনির, যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা মোহাম্মদ আব্দুল আজিজ, ফাউন্ডেশনের সদস্য সমাজ সেবক মো. ফজলুল কাদের বুলবুল, আবু সাইদ চৌধুরী প্রমুখ তার সঙ্গে ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.