শেরপুরে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার প্রস্তুতি।।  পরিচ্ছন্ন কাজে ব্যস্ততা সময় পার করছেন কর্তৃপক্ষ-সত্যবয়ান

শেরপুরে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার প্রস্তুতি।। পরিচ্ছন্ন কাজে ব্যস্ততা সময় পার করছেন কর্তৃপক্ষ-সত্যবয়ান

বুলবুল আহম্মেদ||করোনার কারণে প্রায় দেড় বছর বন্ধ থাকার পর দেশের স্কুল ও অন্যান্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গতকাল বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে বলেছেন, খুব তাড়াতাড়ি স্কুল-কলেজ খুলে দেওয়ার জন্য তিনি নির্দেশ দিয়েছেন। সে অনুযায়ী ব্যবস্থাও নেওয়া হচ্ছে।

স্কুলগুলোতেও খোলার প্রস্তুতি শুরু হয়েছে। শিক্ষা প্রশাসন স্কুল কর্তৃপক্ষকে মৌখিকভাবে খোলার প্রস্তুতি নিয়ে রাখতে বলেছে। কী প্রস্তুতি নিতে হবে, তা গত ফেব্রুয়ারিতেই জানানো হয়েছিল।

দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো গত বছরের ১৭ মার্চ থেকে বন্ধ রয়েছে। গত ২৪ আগস্ট প্রকাশিত জাতিসংঘ শিশু তহবিল বা ইউনিসেফের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, কোভিড-১৯-এর কারণে সবচেয়ে বেশি সময় ধরে স্কুল বন্ধ থাকা দেশের মধ্যে বাংলাদেশ দ্বিতীয়।

শেরপুরে স্বাস্থ্যবিধি অনুসরনে সবধরনের কাজ প্রায় শেষ হয়েছে। এখন চলছে শেষ মূহুর্তের প্রস্তুতি।
সরেজমিনে শনিবার সকালে শেরপুর শহরের ডা. সেকান্দর আলী কলেজে গিয়ে দেখা যায়, প্রতিষ্ঠানের সকল শ্রেণীকক্ষ, কলেজ মাঠসহ সরকারি নিয়ম অনুসারে ধোয়া মোছার কাজ শতাভাগ সম্পর্ণ হয়েছে। শুধু সেকান্দর আলী কলেজই নয় সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এমন চিত্র লক্ষ করা গেছে।

এ বিষয়ে ডা. সেকান্দর আলী কলেজের প্রভাষক সাইফুল ইসলাম চাঁন জানান, সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী আগামীকাল ১২ সেপ্টেম্বর থেকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা রাখার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এরই অংশ হিসেবে প্রতিষ্ঠান শ্রেণীকক্ষসহ অত্র প্রতিষ্ঠানের মাঠ পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা করার জন্য একটি মনিটরিং টিম করে দেওয়া হয়েছে। আমরা সর্বচ্চ চেষ্টা করছি পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা রাখার জন্য। যেদিন প্রতিষ্ঠান খুলবে সেদিন থেকেই কলেজ গেইটে শিক্ষকসহ পিওনরা থাকবে। কোন শিক্ষার্থীর যদি কোন ধরনের তাপমাত্রা বেশি থাকে তাহলে কলেজ আইসোলেশন কক্ষ রয়েছে সেখানে তাকে রাখা হবে। এছাড়াও মাস্ক ছাড়া শিক্ষক কিংবা শিক্ষার্থীদের ভিতরে আসার সুযোগ নেই। প্রতিটি ব্রেঞ্চে শিক্ষার্থীরা কমপক্ষে তিন ফিট দূরত্ব বসবে।

এব্যাপারে ডা. সেকান্দর আলী কলেজের অধ্যক্ষ মুকুল জানান, সকল নির্দেশনা মেনে আমরা একাডেমি পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা ইতিমধ্যে সম্পুন্ন করেছি। হাত ধোয়ার সুব্যবস্থা করা, সেনিটাইজার করা, আইসোলেশন ব্যবস্থা ইতিমধ্যে সম্পুর্ণ করা হয়েছে। একই সাথে কলেজের লগু সম্বলিত মাস্কের ব্যবস্থাও করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!