বিয়ের আগেই একসাথে থাকতে চান ঋতাভরি-সত্যবয়ান

বিয়ের আগেই একসাথে থাকতে চান ঋতাভরি-সত্যবয়ান

বিনোদন ডেস্ক: বর্তমানে ভারতীয় বাংলা এবং হিন্দি ছবির বেশ পরিচিত মুখ ঋতাভরি চক্রবর্তী। মিষ্টি চেহারার মেয়েটি খুব অল্প বয়সেই সাফল্যের মুখ দেখেছেন। তবে বিয়ে নিয়ে তার ভয় আজীবন। তাই বিয়ের আগে প্রেমিকের সাথে কিছুদিন একসাথে থাকতে চান বলে জানালেন তিনি।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজার পত্রিকাকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে ঋতাভরি বলেন, বিয়ে ব্যাপারটাকেই আমি ভয় পাই, যেহেতু একটা ভাঙা পরিবার থেকে এসেছি। আশপাশে বহু সম্পর্ক ভেঙে যেতে দেখেছি। বিয়ের পর কেউ যদি বলে এটা কোরো না, বোল্ড ছবি দিয়ো না। সে সব মেনে নিতে পারব না। সত্যি বলতে, এর আগে কাউকে দেখে মনে হয়নি, তার সঙ্গে সংসার করতে পারব। তবে আমার কিছু বলার আগেই হঠাৎ একদিন ও-ই বলল, ‘তুমি পাশে থাকলে তোমার প্রতি কেমন যেন বৌ বৌ ফিলিং আসে।

তিনি আরও বলেন, আমার একটাই শর্ত ছিল, যাকে বিয়ে করব, বিয়ের আগে তার সঙ্গে কিছু দিন থাকতে চাই। কিন্তু দুই বাঙালি পরিবার ব্যাপারটাকে কী ভাবে নেবে জানি না। তাই ঠিক হল, এ বছর ডিসেম্বরে এনগেজমেন্ট করে আমরা একসঙ্গে থাকব আমার বাড়িতে। কোভিড পরিস্থিতি ঠিক হলে পরের বছর বা তার পরের বছর জাঁকজমক করে বিয়ে করব। বিয়ের পরে অবশ্য সল্টলেকেই নতুন একটা বাড়িতে থাকব, যেটা আমাদের দু’জনের বাড়ি থেকেই কাছে হবে। আপনারা আমার বিয়ের যে খবরটা পেয়েছিলেন, সেটা ভুল ছিল না। আমি সত্যিই জীবনের পরের পদক্ষেপটা খুব তাড়াতাড়ি নিতে চাই। ওর পরিবারে সকলে ডাক্তার। আশা করব, আমার কাজের ধারার সঙ্গে ও যেন মানিয়ে নিতে পারে।

ঋতাভরির প্রেমিক পেশায় মনোবিদ। জিনগতভাবেই অভিনেত্রীর রেকারেন্ট ডিপ্রেশন আছে। এই রোগে রোগী কিছু দিন ভাল থাকে, কিছু দিন খারাপ। তাই মনের চিকিৎসা করতে গিয়ে জীবনসঙ্গী পেয়ে গেলেন নায়িকা। সম্প্রতি তিনি বিয়ে করছেন বলে গুঞ্জন উঠেছিল সিনেপাড়ায়। তার সত্যতা এবার নিজেই জানালেন ঋতাভরি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!