ব্যাটসম্যানদের ও বোলারদের প্র্যাকটিসটাও ভালো হলো-সত্যবয়ান

ব্যাটসম্যানদের ও বোলারদের প্র্যাকটিসটাও ভালো হলো-সত্যবয়ান

ক্রীড়া প্রতিবেদক । হোক সেটা প্রস্তুতি ম্যাচ। জয় সব সময়ই অনুপ্রেরণার। প্রতিপক্ষ ছিল ওমান ‘এ দল। এই দলটির বিপক্ষে ২০৭ রান করার পর বাংলাদেশ জয় পেয়েছে ৬০ রানের ব্যবধানে। মূলতঃ বোলারদের নৈপূণ্যে বড় জয় সম্ভব হলো। প্রায় প্রতিজন বোলাররেই দারুণ ভূমিকা ছিল এই জয়ে।

বাংলাদেশের করা ২০৭ রানের জবাব দিতে নেমে শুরুতেই বিপর্যয় স্বাগতিক ওমানের। নাসুম আহমেদ আর শেখ মেহেদির ঘূর্ণিতে ফিরে যায় দুই ওপেনর অক্ষয় প্যাটেল এবং প্রুত্থিকুমার মাচ্চি। ওয়ান ডাউনে নামা শোয়াইব খান মেটামুটি প্রতিরোধ গড়েন। ৩৯ বলে তিনি খেলেন ৪৩ রানের ইনিংস।

বাকি ব্যাটসম্যানরা ছিলেন কেবল আসা-যাওয়ার মিছিলে। শেষ মুহূর্তে রাফিউল্লাহ ১৪ বলে করেন ৩১ রান। রউফ আতাউল্লাহ করেন ১৯ রান, মেহরান খান করেন ১৯ রান। শেষ পর্যন্ত ৯ উইকেট হারিয়ে ওমান ‘এথ সংগ্রহ করে ১৪৭ রান। তাদের পরাজয় বরাবর ৬০ রানে।

বাংলাদেশের বোলারদের মধ্যে কৃপণ ছিলেন মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। ৪ ভারে ১৭ রান দিয়ে তিনি নেন ২ উইকেট। পেসার শরিফুল ইসলাম ৪ ওভারে ৩০ রান দিয়ে নেন ৩ উইকেট। ১টি করে উইকেট নেন নাসুম আহমেদ, শেখ মেহেদী এবং আফিফ হোসেন।

এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে শেষ মুহূর্তে নুরুল হাসান সোহানের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ দাঁড় করায় ২০৭ রানের সংগ্রহ। মাত্র ১৫ বলে ৭ ছক্কায় ৪৯ রান করেন সোহান। ৫৩ বলে ৬৩ রান করেন নাইম শেখ এবং ৩৩ বলে ৫৩ রান করেন লিটন দাস।

Leave a Reply

Your email address will not be published.