বাল্যবিয়ে প্রতিরোধে জন্মনিবন্ধন সচেতনতায় র্যালী পথসভা-সত্যবয়ান

বাল্যবিয়ে প্রতিরোধে জন্মনিবন্ধন সচেতনতায় র্যালী পথসভা-সত্যবয়ান

স্টাফ রিপোর্টার||বাল্যবিয়ে একটি সামাজিক ব্যধি। এতে শিশুর সুরক্ষা ও স্বাভাবিক বিকাশ বাঁধাগ্রস্ত হয়। জন্মনিবন্ধন কমাতে পারে বাল্যবিয়ে। শিশুর জন্মের ৪৫ দিনে মধ্যে জন্মনিবন্ধন করতে হবে। জন্মের পর পরই শতভাগ শিশুর জন্মনিবন্ধন নিশ্চিত করা গেলে বাল্যবিয়ে প্রতিরোধ করা অনেকটা সহজ হবে। এজন্য আমাদের সবাইকে সচেতন হতে হবে। সামাজিক সচেতনতার মাধ্যমে বাল্যবিয়ের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে। বাল্যবিয়ে করবো না, দেবো না, মানবো না, সইবো না। যেখানেই বাল্যবিয়ে, সেখানেই প্রতিরোধ। যার যার অবস্থান থেকে সবাইকে সোচ্চার ভুমিকা রাখতে হবে। শেরপুরে বাল্যবিয়ে প্রতিরোধে জন্মনিব্ধন সচেতনতামুলক র‌্যালি ও পথসভায় এমন সব শ্লোগান ও বক্তব্য ওঠে আসে। জনউদ্যোগ শেরপুর ও বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ শেরপুর জেলা শাখা বিভিন্ন সহভাগী সংগঠনের সহায়তায় ১২ অক্টোবর মঙ্গলবার দুপুরে শহরের গুরুত্বপূর্ণ ৫টি পয়েন্টে এ কর্মসূচির আয়োজন করে। জেলা প্রশাসক মো. মোমিনুর রশীদ প্রধান অতিথি হিসেবে কালেক্টরেট চত্বরে র‌্যালি ও পথসভার উদ্বোধন করেন। জনউদ্যোগ আহŸায়ক শিক্ষক মো. আবুল কালাম আজাদ-এর সঞ্চালনায় এসময় স্থানীয় সরকার উপ-পরিচালক এটিএম জিয়াউল ইসলাম, ভারপ্রাপ্ত পৌর মেয়র মো. নজরুল ইসলাম বক্তব্য রাখেন। এতে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোক্তাদিরুল আহমেদ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) ফরিদা ইয়াসমিন, পৌরসভার স্যানেটারি ইন্সপেক্টর শাহজাদা মিয়া সহ বিভিন্ন পর্যায়ের সরকারি-বেসরকারি কর্মকর্তা, শিশু সংগঠক ও সুধীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। পরে র‌্যালিটি শহর প্রদক্ষিণ করে ডিসি গেইট মোড়, খরমপুর মোড়, টাউন হল মোড় ও নিউমার্কেট প্রাঙ্গণে পথসভার মাধ্যমে কর্মসূচি শেষ হয়। এসব পথসভায় জনউদ্যোগ আহŸায়ক শিক্ষক মো. আবুল কালাম আজাদ, মহিলা পরিষদ জেলা শাখার যুগ্ম সম্পাদিকা আঞ্জুমান আরা যুথী, নারী উদ্যোক্তা আইরীন পারভীন, এনসিটিএফ স্বেচ্ছাসেবক রজত সাহা অন্তু, এফএফসিআর সভাপতি ফারাবী জাবিন সায়েরী, উদীচীর সংগঠক এসএম, আব্দুল হান্নান, কমিউনিস্ট পার্টির সাধারণ সম্পাদক সুলায়মান আহমেদ, আইপি ফেলো সুমন্ত বর্মন, রক্তদাতা অনিক মাহবুব, হরিজন নেত্রী মুক্তা হরিজন প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। র‌্যালি ও পথসভায় ন্যাশনাল চিলড্রেন’স টাস্কফোর্স (এনসিটিএফ), নারী রক্তদান সংস্থা, হিউম্যান রাইটস ডিফেন্ডার্স (এইচআরডি), ফাইট ফর চিলড্রেন’স রাইটস (এফএফসিআর), ইনস্টিটিউট ফর এনভায়রণমেন্ট অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট (আইইডি), শেরপুর ডিস্ট্রিক্ট ডিবেট ফেডারেশন (এসডিডিএফ), ভলান্টিয়ার ফর বাংলাদেশ (ভিবিডি), আমরা রক্তদান করি সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ও স্বেচ্ছাসেবকরা অংশগ্রহণ করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!