শেরপুরে ভোটের মাঠে ৫ নারী প্রার্থী-সত্যবয়ান

শেরপুরে ভোটের মাঠে ৫ নারী প্রার্থী-সত্যবয়ান

স্টাফ রিপোর্টার||শেরপুরে ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে ভোটের মাঠে চেয়ারম্যান পদে লড়াই করছেন পাঁচজন নারী। তাদের মধ্যে তিনজন আওয়ামী লীগ মনোনীত। দুজন স্বতন্ত্র প্রার্থী।

আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীরা হলেন-শেরপুর সদর উপজেলার ভাতশালা ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান নাজমুন নাহার, নকলা উপজেলার বানেশ্বর্দী ইউনিয়নে আঞ্জুমান আরা বেগম ও নালিতাবাড়ী উপজেলার পোড়াগাঁও ইউনিয়নে বন্দনা চাম্বুগং। আর স্বতন্ত্র প্রার্থীরা হলেন-সদর উপজেলার কামারিয়া ইউনিয়নের টেলিফোন প্রতীকের শান্তনা ইয়াসমিন এবং একই উপজেলার ধলা ইউনিয়নে মোটরসাইকেল প্রতীকের জেসমিন আক্তার।

জানা গেছে, দ্বিতীয় দফায় আগামী ১১ নভেম্বর অনুষ্ঠেয় শেরপুর সদর উপজেলার ভাতশালা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে লড়ছেন মহিলা আওয়ামী লীগ নেত্রী নাজমুন নাহার। প্রায় এক বছর আগে উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী হয়ে নির্বাচিত হন নাজমুন নাহার। এবারের নির্বাচনে তার একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে লড়ছেন দলের বিদ্রোহী প্রার্থী ব্যবসায়ী শামীম হোসেন।

একই উপজেলার কামারিয়া ইউনিয়নে দলের বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে লড়ছেন জেলা কৃষক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক চেয়ারম্যান নূরে আলম সিদ্দিকী। মনোনয়ন বাছাইয়ে বাতিল হওয়ায় বিকল্প প্রার্থী হিসেবে টেলিফোন প্রতীক নিয়ে মাঠে ছিলেন তার স্ত্রী শান্তনা ইয়াসমিন। তবে উচ্চ আদালতের রিটে নূরে আলম সিদ্দিকী তার প্রার্থিতা ফিরে পাওয়ায় আনারস প্রতীকে লড়বেন। এ জন্য তার স্ত্রী এখন মূল লড়াইয়ে থাকছেন না। তবে ব্যালট পেপারে তার নাম ও প্রতীক থাকছে।

এ ছাড়া ধলা ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ও বর্তমান চেয়ারম্যান রহিজ উদ্দিন এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী বিএনপি সমর্থক জাকির হোসেনের সঙ্গে মোটরসাইকেল প্রতীক নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে লড়ছেন স্থানীয় প্রয়াত আওয়ামী লীগ নেতা আক্কাস আলীর পুত্রবধূ জেসমিন আক্তার।

এদিকে তৃতীয় দফায় আগামী ২৮ নভেম্বর অনুষ্ঠেয় নির্বাচনে নকলা উপজেলার বানেশ্বর্দী ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন স্থানীয় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ও সাবেক চেয়ারম্যান প্রয়াত আনিসুর রহমানের স্ত্রী আঞ্জুমান আরা বেগম।

এছাড়া নালিতাবাড়ী উপজেলার পোড়াগাঁও ইউনিয়নে এবারও মনোনয়ন পেয়েছেন স্থানীয় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি বন্দনা চাম্বুগং।

বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ শেরপুর জেলা শাখার সভানেত্রী জয়শ্রী দাস লক্ষ্মী বলেন, নারীর ক্ষমতায়নের প্রশ্নে তাদের নির্বাচনে অংশগ্রহণ করা অবশ্যই ইতিবাচক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!