শেরপুর টিটিসিতে বৈদেশিক চাকুরীর মেলায় অনেক বেকারের ভাগ্য খোলছে-সত্যবয়ান

শেরপুর টিটিসিতে বৈদেশিক চাকুরীর মেলায় অনেক বেকারের ভাগ্য খোলছে-সত্যবয়ান

নকলা শেরপুর প্রতিনিধি:“মুজিব বর্ষের আহবান, দক্ষ হয়ে বিদেশ যান” এই শ্লোগানকে সামনে রেখে শেরপুর টিটিসি-তে বৈদেশিক চাকুরীর মেলা (জব ফেয়ার) অনুষ্ঠিত হয়েছে। শেরপুর জেলার নকলা উপজেলার গনপদ্দীতে অবস্থিত শেরপুর কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র (টিটিসি)-এর সহযোগিতায় এ মেলা অনুষ্ঠিত হয়। এতে অনেক বেকার পুরুষের ভাগ্য খোলবে। এতে সরকার কর্তৃক নির্ধারিত খরচে সৌদি আরবে ইনডোর ও আউটডোরে চাকরি করার সুবর্ণ সুযোগ পাবেন অন্তত এক হাজার বাংলাদেশী পুরুষ শ্রমিক। সৌদি আরবে গমনেচ্ছুক ২১ বছর থেকে ৩৫ বছর বয়সী অভিজ্ঞ বা অনভিজ্ঞ কমর্ী বাছাই করার লক্ষ্যে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে ৯টা থেকে শেরপুর কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র (টিটিসি)-এর অফিস কক্ষে নিয়োগ পরীক্ষা (মৌখিক) শুরু হয়। সরকার কর্তৃক নির্ধারিত খরচে সৌদি আরবে গমনেচ্ছুক বেকারদের মৌখিক পরীক্ষা গ্রহন করেন চীফ ইন্সট্রাক্টর (প্রধান প্রশিক্ষক) এস.এম আজহার। এসময় উপস্থিত ছিলেন ডি.এম ও জামালপুর জেলার এ.ডি ইকরামুন নাহার, শেরপুর কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র (টিটিসি)-এর অধ্যক্ষ মির্জা ফিরোজ হাসানসহ টিটিসিতে কর্মরত অন্যান্য কর্মকর্তাগন। মৌখিক পরীক্ষা চলাকালে নিয়োগ প্রক্রিয়া পরিদর্শন করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা শফিকুল ইসলাম জিন্নাহ্ এসময় উপজেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক খলিলুর রহমান, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আব্দুর রশিদ সরকার, নকলা প্রেস ক্লাবের সহসভাপতি খন্দকার জসিম উদ্দিন মিন্টু ও সাংগঠনিক সম্পাদক মো. নূর হোসেনসহ স্থানীয় সাংবাদিকগনসহ টিটিসিতে কর্মরত অন্যান্য কর্মকর্তা-কর্মচারীগন, সৌদি আরবে গমনেচ্ছুক উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে আগত অগণিত বেকার পুরুষ উপস্থিত ছিলেন।
জানা গেছে, সৌদি আরবস্থ বিখ্যাত “ওলায়ান” গ্রুপের একটি প্রতিষ্ঠান “জুসুর ইমদাদ” কোম্পানীতে সরকার ঘোষিত অভিবাসন ব্যয়ে ও মধ্যসত্ত্বভোগী ছাড়া ইনডোরে ক্লিনার ও আউটডোরে ফ্যাক্টরী হেল্পার নিয়োগ করা হবে। এতে নির্বাচিত কমর্ীর ভিসা প্রসেসিং ও সার্বিক তত্ত্বাবধানে থাকবে ম্যাক্স ম্যানেজম্যান্ট এন্ড সার্ভিসেস নামের একটি দেশীয় কোম্পানী। প্রাথর্ী নির্বাচিত হওয়ার বিষয়টি অফিস কর্তৃক নিশ্চিত হওয়ার ৫ কর্ম দিবসের মধ্যে নিজ খরচে গামকা মেডিকেল করাতে হবে। নিজের পাসপোর্ট, সাদা ব্যাকগ্রাউন্ডে ১০ কপি পাসপোর্ট সাইজ ছবি, পুলিশ ক্লিয়ারেন্স ও ও গামকা মেডিকেল ফিটনেস রিপোর্ট অফিসে জমা দিতে হবে। ভিসা প্রাপ্তির ৩০ দিনের মধ্যে প্রাথর্ীকে নির্ধারিত নিজ নিজ কর্মস্থলে যোগদানের প্রস্তুত থাকতে হবে। নির্বাচিত প্রাথর্ীকে সৌদি আরবের অনুমোদিত করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯)-এর পূর্ণ ডোজ গ্রহন করার সার্টিফিকেট নেয়া বাধ্যতামূলক। বিশেষ করে কোম্পানীর এজেন্ট এর হটলাইন নাম্বার ০৯৬৭৮-৮০০৭৭৭ এই নাম্বার ছাড়া অন্যকোন নাম্বারে যোগযোগ করে প্রতারিত হলে বা বিদেশ গমনে বাধা প্রাপ্ত হলে কর্তৃপক্ষ কোন প্রকার দায়ভার নিবেনা বা দায়ী থাকবে না বলে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের বরাতে সুষ্পষ্ট জানান দেওয়া হয়েছে। এই চাকরী মেলার মাধ্যমে সৌদি আরবে গেলে কমর্ীরা কোম্পানী কর্তৃক ইকামা, থাকা, মেডিকেল ইন্সুরেন্স ও যাতায়াত খরচ সুবিধা পাবেন। কমর্ীরা সৌদি আরবের নাজরান ছাড়া কোম্পানীর যে কোন শাখায় চাকরি করতে পারবেন। কমর্ীদের প্রতিদিন ৮ ঘন্টা করে কর্মে থাকতে হবে। এছাড়া ১ ঘন্টা নামাজ ও খাওয়ার জন্য বরাদ্দ থাকবে। আর কোম্পানীর নিয়ম অনুযায়ী ওভার টাইম করতে হতে পারে। এতে কমর্ীরা খাবার বাবদ ২০০ সৌদি রিয়ালসহ মোট ৯০০ সৌদি রিয়াল করে প্রতি মাসে নির্ধারিত বেতন পাবেন। চুক্তির মেয়াদ থাকবে ২বছর। চুক্তির মেয়াদ শেষে কমর্ীরা কোম্পানী কর্তৃক রিটার্ন এয়ার টিকেট পাবেন। তবে কমর্ীরা চাইলে মেয়াদ বৃদ্ধি করা যাবে এবং ভিসার মেয়াদ নবায়নযোগ্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!