শেরপুরে অভ্যন্তরীণ বোরো সংগ্রহ অভিযান আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করলেন হুইপ আতিক||সত্যবয়ান

শেরপুরে অভ্যন্তরীণ বোরো সংগ্রহ অভিযান আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করলেন হুইপ আতিক||সত্যবয়ান

স্টাফ রিপোর্টার: শেরপুরে চলতি বোরো মৌসুমে অভ্যন্তরীণ বোরো ধান-চাল সংগ্রহ অভিযান ২০২২ উদ্বোধন করা হয়েছে। ১০ মে মঙ্গলবার বিকেল ৪ টায় শেরপুর জেলা শহরের খরমপুর এল.এস.ডি (গ্রেড-১) সংরক্ষণ ও চলাচল কর্মকর্তার কার্যালয়ে বোরো ধান সংগ্রহ অভিযান প্রধান অতিথি হিসেবে ফিতা কেটে আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের হুইপ বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আতিউর রহমান আতিক এমপি।
জেলা প্রশাসক মো. মোমিনুর রশীদ এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আতিউর রহমান আতিক এমপি বলেন, শেরপুরে এ বছরে বোরো মৌসুম কৃষকের জন্য শুভ বার্তা বয়ে আনবে। এছাড়া কৃষক তার উৎপাদিত ধানের ন্যায্যমূল্য পাবে। এতে করে কৃষকের মধ্যে আশার সঞ্চার হবে এবং কৃষক আশ্বস্ত হবে। শেরপুর জেলার উৎপাদিত উৎকৃষ্ঠ মানের চাল সারাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ব্যাপক সূখ্যাতি রয়েছে। সেই সাথে শেরপুরের চাল বিশ্বের বিভিন্ন দেশে আজ রপ্তানি হচ্ছে। এ জেলার উৎপাদিত চাল সেনাবাহিনী ও বিজিবিসহ সরকারি অন্যান্য সংস্থার মধ্যে সরবরাহ করা হয়ে থাকে। তিনি আরো বলেন, তাই দেশে খাদ্য মজুদ নিশ্চিত করার জন্য নির্ধারিত লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী খাদ্য গুদামে ভালো মানের ধান-চাল সরবরাহ করার জন্য শেরপুর জেলার সদর উপজেলার কৃষকদের কাছ থেকে সংগ্রহ ও চুক্তিবদ্ধ চালকল মালিকদের প্রতি তিনি উদ্বাত্ত আহ্বান জানান। এছাড়াও হুইপ আতিক বলেন, ধান-চাল সংগ্রহ অভিযানকালে কৃষক এবং মিল মালিকগণ কোন হয়রানির শিকার না হয় সেদিকে খাদ্য বিভাগের কর্মকর্তাদের লক্ষ্য রাখার আহ্বান জানান।
এসময় শেরপুর জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক ও সদস্য সচিব মো. আল্-ওয়াজিউর রহমান বলেন, সারাদেশে সরকার কৃষকদের কাছ থেকে ৬ লক্ষ ৫০ হাজার মে. টন ধান ক্রয় করবে। এছাড়াও কৃষকদের পাশাপাশি চাল উৎপাদনকারী মিল মালিকদের কাছ থেকে ১১ লক্ষ মে. টন সিদ্ধ চাল ক্রয় করবে। প্রতি কেজি ধানের সংগ্রহ মূল্য ২৭ টাকা এবং প্রতি কেজি সিদ্ধ চালের সংগ্রহ মূল্য ৪০ টাকা ধরা হয়েছে। এবছর শেরপুর জেলার পাঁচ উপজেলার মধ্যে শেরপুর সদরে ৩ হাজার ৩৬৫ মে. টন, নালিতাবাড়ীতে ৩ হাজার ৩ মে. টন, নকলাতে ২ হাজার ৩১ মে. টন, শ্রীবরদীতে ২ হাজার ৩৪৮ মে. টন, ঝিনাইগাতীতে ১ হাজার ৯১২ মে. টনসহ মোট ১২ হাজার ৬৫৯ মে. টন ধান সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে।
এছাড়াও এবছর শেরপুর জেলার পাঁচ উপজেলার মধ্যে শেরপুর সদরে ১৫ হাজার ২১৪ মে. টন, নালিতাবাড়ীতে ২ হাজার ২৭০ মে. টন, নকলাতে ৭৩৪ মে. টন, শ্রীবরদীতে ১ হাজার ৬০২ মে. টন, ঝিনাইগাতীতে ১ হাজার ৮০২ মে. টনসহ মোট ২১ হাজার ৬২২ মে. টন চাল সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে।
ধান সংগ্রহের সময়সীমা তারিখ ২৮ এপ্রিল থেকে ৩১ আগস্ট ২০২২ খ্রি. এবং সিদ্ধ চাল সংগ্রহের তারিখ ৭ মে থেকে ৩১ আগস্ট ২০২২ খ্রি. পর্যন্ত।
অভ্যন্তরীণ বোরো সংগ্রহ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে শেরপুর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক ড. মোহিত কুমার দে, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মেহনাজ ফেরদৌস, শেরপুর এলএসডি (গ্রেড-১) সংরক্ষণ ও চলাচল কর্মকর্তা মো. মিজানুর রহমান, শেরপুর চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি ও চালকল মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব আসাদুজ্জামান রওশন, জেএন্ডএস গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সাপ্তাহিক দৃশ্যপট প্রকাশক সম্পাদক মো. সাদুজ্জামান সাদী, জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট তারিকুল ইসলাম ভাষানী, জেলা আওয়ামী লীগ ধর্মবিষয়ক সম্পাদক আলহাজ্ব দুলাল মিয়া, শিক্ষা ও মানবসম্পদ বিষয়ক সম্পাদক মো. শামীম হোসেন, শেরপুর খাদ্য বিভাগের পরিদর্শক মো. রুকুনুজ্জামান রুকন, মাহবুবুর রহমান মজনু, জেএন্ডএস গ্রুপের সহকারি মহাব্যবস্থাপক আলমগীর কিবরিয়া সঞ্চয়, শেরপুর প্রেসক্লাব সভাপতি মো. শরিফুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক মেরাজ উদ্দিন, খাদ্য কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকগণ উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *