শেরপুরে সালিশ বৈঠকে দ্বন্দ্ব নিরসনে প্রতিপক্ষের হামলায় নিহত ১, আহত ১

শেরপুরে সালিশ বৈঠকে দ্বন্দ্ব নিরসনে প্রতিপক্ষের হামলায় নিহত ১, আহত ১

স্টাফ রিপোর্টার: শেরপুর জেলার সদর উপজেলার চরপক্ষীমারী ইউনিয়নের সাতপাকিয়া গ্রামে সেচের পানি দেয়ার ঘটনায় পক্ষ প্রতিপক্ষর বিরোধ মিমাংসা এবং উভয়ের মধ্যে দ্বন্দ্ব নিরসনে বুধবার (২৬ অক্টোবর) সন্ধ্যায় এক সালিশ বৈঠকে পুনরায় এক সংঘর্ষের জের ধরে একই গ্রামের প্রতিপক্ষ চান মিয়ার ছেলে মমিন (৩৫), শাকিল (৩০) ও মিনাল (২০) সহ অপরাপর সহযোগিদের সন্ত্রাসী হামলায় ধারালো অস্ত্রের উপর্যপরি আঘাতে কিনার আলী (৪০) নামে এক ব্যক্তি নিহত এবং ফিরোজ আলী (৩০) গুরুতর আহত হয়েছেন।
আহত ফিরোজ ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নিহত কিনার আলী শেরপুর জেলার সদর উপজেলার চরপক্ষীমারী ইউনিয়নের সাতপাকিয়া গ্রামের মৃত আঃ হাকিমের ছেলে এবং আহত ফিরোজ একই গ্রামের উকিল মিয়ার ছেলে।
পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, সদর উপজেলার সাতপাকিয়া গ্রামের আনার উদ্দিনের ছেলে চান মিয়ার সাথে একই গ্রামের আঃ হাকিমের ছেলে কিনার আলী গংদের সাথে ক্ষেতে সেচের পানি নিয়ে বিরোধ হয়। পরবর্তীতে সেই বিরোধ এবং দ্বন্দ্ব নিরসনে বুধবার সন্ধ্যায় একই গ্রামের কালা চানের বাড়িতে এক সালিশ বৈঠক বসে। এসময় পূর্বপরিকল্পিতভাবে চান মিয়ার ছেলে মমিন, শাকিল, মিনালসহ অপরাপর সহযোগিরা কিনার আলী ও ফিরোজ আলীর উপর সন্ত্রাসী হামলা চালায়। এসময় সন্ত্রাসীদের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে তারা গুরুতর আহত হয়। পরে আত্মীয় স্বজন তাদের উদ্ধার করে শেরপুর জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করলে তাদের মধ্যে কিনার আলী মৃত্যুবরণ করেন। এদিকে গুরুতর আহত ফিরোজ আলীর শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটলে কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন।
এব্যাপারে সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) বছির আহমেদ বাদল সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.